Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘যত ষড়যন্ত্রই হোক, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই’

ঢাকা, ১৭ ডিসেম্বর : আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্তলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, যত ষড়যন্ত্রই হোক, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই। রবিবারের বিজয় দিবসে লাখ লাখ মানুষ সারা দেশে বিজয় মিছিল করেছে। তারা শপথ নিয়েছে- যে কোন মূল্যে স্বাধীনতা বিরোধীদের বিচার প্রত্যাশা করছে।

তিনি বলেন, বিএনপি যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে জামায়াতের পাশে দাড়িয়েছে। বিএনপি জামায়াত এক সঙ্গে মিলে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে চায়। এজন্য তারা নানা ষড়যন্ত্র অব্যহ্যত রেখেছে।
সোমবার সকালে মহাজোটের শরীক গণতন্ত্রী পার্টি কার্যালয়ে ২২ ডিসেম্বরের ১৪ দলের গণমিছিল সফল করতে আয়োজিত এক যৌথ আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা আরো বলেন, আমাদের শপথ নিতে হবে এদের বিরুদ্ধে ৭১’রের মত ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও রায় কার্যকর করতে হবে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, জামায়াত-শিবির পুলিশের উপর চোরাগোপ্তা হামলা চালাচ্ছে। বিএনপি ও জিয়াউর রহমান যদি এদের সুযোগ করে না দিতো তবে এরা আজ এদেশে রাজনীতি করতে পারতো না।

সভায় ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে স্কাইপে সংলাপ নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে ইকোনমিস্ট পত্রিকাসহ আরো অনেকে।

তিনি বলেন, যারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করতে চায় তারা কখনো সফল হবে না। যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর কোন ষড়যন্ত্রই টিকবে না।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিজয় দিবসকে কেন্দ্র করে গণজাগরণ ও গণ উন্মাদনা সৃষ্টি হয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই। এদের বিচার হলে গতকালের মত সারা দেশে জনতার ঢল নামবে।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, গণ আজাদী লীগের সভাপতি আব্দুস সামাদ, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নরুর রহমান সেলিম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, ন্যাপ সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেনসহ ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট