Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

দলের সন্ত্রাসীদের হত্যা-লুণ্ঠনের ছাড়পত্র দিয়েছে সরকার: খালেদা

ঢাকা: শাসক দলের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হত্যা, হামলা, দখল ও লুণ্ঠনের খোলা ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ গার্মেন্টস মেনুফ্যাকচার’স অ্যান্ড এক্সপোর্ট অ্যাসোসিশন (বিজেএমইএ)আয়োজিত ২৩তম বাটেক্সপো ২০১২’র সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া বলেন, “সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি অতীতের সব মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে।”

দলীয়-অযোগ্য ও অদক্ষ লোকদের ব্যাংক বীমাসহ সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানে বসিয়ে লুটতরাজ করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, “ইউনিপেটুইউ, হলমার্ক ও ডেসটিনিসহ নানা প্রতিষ্ঠানে থেকে কোটি কোটি টাকা লুট করেছে সরকার। তাদের দুর্নীতির কারণে ব্যাংকগুলোতে তারল্য সংকট চলছে, এমনকি দেশের আর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়ছে।”

শ্রমজীবী মানুষের জীবনের নিরাপত্তা ও কাজের সুষ্ঠু পরিবেশ সুনশ্চিত করতে শিল্পমালিকদের আরো সচেতন ও সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানান খালেদা।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশের এ বিকাশমান শিল্পকে ঘিরে বিদেশি চক্রান্ত চলছে। আর মালিক-শ্রমিক দ্বন্দ্ব ও শ্রমিক অসন্তোষকে কাজে লাগিয়ে অনেক সময় নৈরাজ্য সৃষ্টি করা হয়ে।” সবাইকে এ ব্যাপারে সজাগ থেকে উদ্যোক্তো ও শ্রমিকদের মধ্যে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি বাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

খালেদা জিয়া বলেন, “সরকার একদলীয় মনোভাব নিয়ে গণতন্ত্রের নাম-নিশানা মুছে দেয়ার চেষ্টা করছে। ভিন্নমত ও বিরোধীদলকে ফ্যাসিস্ট কায়দায় দমনের অপচ্ষ্টো করছে। আইনের শাসন বলতে দেশে কিছু নেই। সরকার প্রশাসন ও পুলিশসহ সব রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে বিরোধী দল দমনে ব্যবহার করছে।”

গার্মেন্টস শিল্পের উন্নয়নে তার সরকারের নেয়া নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে খালেদা জিয়া বলেন, “আগামীতে ক্ষমতায় এলে এ শিল্পের উন্নয়নে কাজ করা হবে। কারণ বিএনপি উন্নয়ন ও উৎপাদনের রাজনীতি করে।”

দেশের সার্বিক পরিস্থিতিকে অত্যন্ত নাজুক উল্লেখ করে একটি জাতীয় আন্দেলন গড়ে তুলতে সবার প্রতি আহ্বান জানান বিএনপি চেয়ারপারসন।

বিজেএমইএর সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্ব এতে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সংগঠনের প্রথম সহ-সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন চৌধুরী, সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, এস এম মান্নান কচি, ফয়জুল ইসলাম শামিম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আর এ গণি, তরিকুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, এফবিসিসআইয়ের সভাপতি আকরাম হোসেন, সাংবাদিক শফিক রেহমান, যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল,সংসদ সদস্য শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, নিলোফার চৌধূরী মনি, রেহেনা আক্তার রানু, শাম্মি আখতার, গোলাম মোস্তফা, বিজেএমইএ’র সাবেক সভাপতি সালাম মোর্শেদী, সংগঠনের আলহজ্জ মোশাররফ হোসেন, রেদওয়ান আহমেদ, গোলাম কুদ্দুস, এস এম ফজুলল হক প্রমুখ।,

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট