Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বিজয়ের মাসে আপাতত আর কঠোর কর্মসূচি নয় : তরিকুল

বিজয়ের মাসে আপাতত কঠোর কর্মসূচি দেয়নি প্রধান বিরোধীদল বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মুক্তির দাবিতে ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত দেশব্যাপী হরতাল পালন করে বিরোধী জোট।

গাড়ি পোড়ানোর একটি মামলায় গত সোমবার সন্ধ্যায় বিএনপির প্রধান কার্যালয়ের সামনে থেকে গোয়েন্দা পুলিশ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবকে গ্রেফতার করে।

বৃহস্পতিবার আধাবেলা হরতাল শেষে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম বলেন, বিজয়ের মাসে আমরা হরতাল দিতে চাই না। হরতাল দিলে দেশের ক্ষতি হয়। ব্যবসায়ী সমাজ এর বিরোধিতা করে। কিন্তু আওয়ামী লীগ যখন ১৭৩ দিন হরতাল দিয়েছিল তখন তারা দলীয় আনুগত্যে নীরব ছিল।

তিনি বলেন, বিজয়ের মাসে আমাদের কর্মসূচি রয়েছে এগুলো পালন করবো। তাতেও যদি সরকার আমাদের দাবি মেনে না নেয়, তাহলে আরো কঠোর কর্মসূচি দিয়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে। সরকারের আচরণ পরিবর্তন না হলেই কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

তরিকুল ইসলাম বলেন, জনগণ হরতাল স্বতঃস্ফূর্তভাবে সমর্থন করে সরকারের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছে। হরতাল সফল দাবি করে দেশবাসীকে অভিনন্দন জানান তিনি।

তিনি বলেন, হরতালকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জোটের নেতাকর্মীদের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে হয়রানি করছে এবং গ্রেফতারের হুমকি দিয়েছে।

র‌্যাবের ছত্রছায়ায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ১৮দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এতে ৮৪৭ জনের অধিক নেতাকর্মী আহত হয়ছে বলে দাবি করেন তিনি।

এছাড়াও ১৮’শ এর অধিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে এবং ৩ হাজারের বেশি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি এবং দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান বিএনপি নেতা তরিকুল ইসলাম।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সমালোচনা করে তিনি বলেন, কারাগার সংস্কার করেন। জনগণ আপনাদের মতো অপরাধীদের বিচার উন্মুুক্তস্থানে করবে।

তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সন্ত্রাসীদের সঙ্গে সহনশীল আচরণ করছেন এজন্য তারা উৎসাহী হয়ে নৈরাজ্য চালাচ্ছে। বিশ্বজিৎকে হত্যা করেছে। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেন।

বিরোধী দলের কর্মসূচি দেখলে প্রধানমন্ত্রী জ্ঞানশূন্য হয়ে যান মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম বলেন, দুর্নীতির কারণে সরকারের চেহারা বিকৃত হয়ে গেছে। তিনি বলেন, সরকার নিজেদের কলঙ্ক ঢাকার জন্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে গ্রেফতার করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল নোমান, সাদেক হোসেন খোকা, যুগ্ম মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু, অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবর রহমান সরোয়ার, প্রচার সম্পাদক জয়নুল আবদিন ফারুক, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক হাবিব উন নবী খান সোহেল, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, রেহেনা আক্তার রানু এমপি, শাম্মী আক্তার এমপি, নিলোফার চৌধুরী মনি এমপি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট