Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সিলেটে বিয়ের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের হামলা, লুট

সিলেটের টিলাগড়ে প্রত্যাশা কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে পুলিশের সামনেই হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের সশস্ত্র কর্মীরা। হামলাকারী ছাত্রলীগ ক্যাডারদের নেতৃত্বে ছিল সিলেটের ‘হেরোইন সম্রাট’ বলে পরিচিত কবির আহমদ। হামলাকালে বিয়ের অনুষ্ঠান লণ্ডভণ্ড করা ছাড়াও ব্যাপক লুটপাট চালানো হয়েছে। কনে ইয়াসমীন আক্তারের মা লুৎফা বেগম দাবি করেছেন, এ সময় কনেসহ অতিথিদের কাছ থেকে ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কারসহ মালামাল লুট করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সিলেটের বিএনপি নেতা জামান গ্রুপের কর্মী উজ্জলের ওপর বৃহস্পতিবার টিলাগড় এলাকায় এমপি শফিক গ্রুপের কর্মীরা হামলা চালায়। এ সময় টিলাগড় এলাকায় উজ্জলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয়। এতে উজ্জল গুরুতর আহত হলে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে গতকাল জুমার নামাজ শেষে মসজিদ থেকে ফেরার পথে জামান ও শফিক গ্রুপের কর্মীদের দস্তাদস্তির ঘটনা ঘটে। এ সময় জামান গ্রুপের কর্মীরা এমপি গ্রুপের কর্মী ও ছাত্রলীগ নেতা শাহ জুনায়েদ আহমদের ওপর হামলা চালায়। ছুরিকাঘাতে জুনায়েদ আহত হয়। তাকেও সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার খবর কল্যাণপুর এলাকায় পৌঁছলে শফিকুর রহমান চৌধুরী গ্রুপের ক্যাডার হেরোইন সম্রাট কবির ২৫-৩০ জন ছাত্রলীগ কর্মীকে নিয়ে টিলাগড় পয়েন্টে থাকা জামান গ্রুপের কর্মী দীপকসহ অন্যদের ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে তারা প্রকাশ্য দা ও রামদা হাতে নিয়ে ঘোপালটিলায় স্বেচ্ছাসেবক দলনেতা দীপকের বাড়িতে হামলা চালায়। দীপকের বাড়িতে ভাঙচুর করে বেরিয়ে আসার পথে তারা পথিমধ্যে প্রত্যাশা কমিউনিটি সেন্টারে ভেতরে হামলা চালায়। এ সময় ওই কমিউনিটি সেন্টারের ভেতরে শাহপরাণ এলাকার একটি বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। কবিরের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ কর্মীরা অনুষ্ঠানস্থলের ভেতরে ঢুকে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। এ সময় অনুষ্ঠানস্থলের প্রতিটি চেয়ার, টেবিল, প্লেইট, জানালার গ্লাস ভাঙচুর করা হয়েছে। এতে বিয়ের অনুষ্ঠানের ৫ জন অতিথি আহত হন। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে কনেপক্ষের লোকজন জানান। এদিকে, বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলাকালে কনের গলা ও মহিলা অতিথিদের গলা থেকে ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন কনের মা লুৎফা বেগম। তিনি জানান, আকস্মিক হামলায় আমরা ভীত সন্ত্রন্ত্র হয়ে পড়ি। এ সময় দা ও রামদা হাতে থাকা লোকরা মহিলাদের গলা থেকে স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। যাওয়ার সময় আরও কিছু মালামাল লুট করা হয়েছে। এদিকে, বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা এবং লুটপাট চালানো পর চলে যায় হামলাকারী ক্যাডাররা। এরপর টিলাগড় পয়েন্টে থাকা পুলিশ দল সেখানে আসে। তারা এসে কনেকে গাড়িতে তুলে দেয়। তার আগেই ভয়ে অনেক অতিথি বিয়ের অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করে চলে যান। এদিকে স্বেচ্ছাসেবক দলনেতা দীপক অভিযোগ করেছেন, তার বাসায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে। হেরোইন সম্রাট কবিরের নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয় বলে জানান তিনি। তবে, এমপি গ্রুপের বেশ কয়েকজন কর্মী জানিয়েছেন, ভুলবশত বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা চালানো হয়েছে। ওই সময় মনে করা হয়েছিল দীপক ও তার সহযোগীরা কমিউনিটি সেন্টারের ভেতরে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে, এ ঘটনার জের ধরে গতকাল সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর মীরাপাড়ায় শ্যামল সিলেট পত্রিকার সাংবাদিক মুহিতের বাসায় হেরোইন কবিরের নেতৃত্বে হামলা হয়েছে। এ সময় ভাঙচুর করা হয় বলে জানা গেছে। সিলেটের শাহপরাণ থানার ওসি মো. লিয়াকত আলী জানিয়েছেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছে। তবে কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি বলে জানান তিনি।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট