Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

৯০’এর ৪ ডিসেম্বরের মতো আবারও রাজপথ দখল করব: ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া

০৬ ডিসেম্বর: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, দিন বেশী দুরে নয়, নিদর্লীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে ৯০’এর ৪ ডিসেম্বরের মতো জনগণ আবার রাজপথ দখল করে নেবে। যে কোন মূল্যে নব্য স্বৈরাচারের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করা হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল আয়োজিত “নতুন করে জ্বালানী তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সরকারের চক্রান্তের” প্রতিবাদে অবস্থান ধর্মঘটে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনি বলেছিলেন এরশাদের সাথে যারা নির্বাচনে যাবে তারা জাতীয় বেঈমান, কিন্তু কিছুদিন পরেই তার সাথেই নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ রেখে ব্যারিস্টার রফিক বলেন, আজ গণতন্ত্রের বিজয়ের দিনে এরশাদের পতনের কথা স্মরণ করে মন্ত্রীসভা তার দলের মন্ত্রীদের বাদ দিন এবং রাজাকার ত্যাগ করুন।

আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা ভুলিনি ৯৪-৯৫ সালের বিজয়ের মাসে আপনারা কতগুলো হরতাল দিয়েছিলেন? গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত রাখতে এবং মানুষের অধিকার অক্ষুন্ন রাখতে এ বিজয়ের মাসেই শপথ নিতে হবে। অনতিবিলম্বে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের ঘোষণা দিন আপনাদের কাধে কাধ মিলিয়ে এগিয়ে যাবো। অন্যথায় রাজপথেই সমস্যার সমাধান করা হবে।

আওয়ামী লীগের দ্বিমুখী আচরনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, জামায়াতের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আপনারাই আন্দোলন করেছিলেন তত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে। আর এখন নিবন্ধিত এ রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধ করার পায়তারা করছেন।

২০ হাজার কোটি টাকা এ পর্যন্ত কুইকরেন্টালের মাধ্যমে লুট করা হয়েছে উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেছেন, বর্তমান সরকারের অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন কুইকরেন্টাল করার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল কারন জনগণের অর্থ অপচয় হচ্ছে। তারপরও প্রধান মন্ত্রী নতুন করে কেন কুইক রেন্টাল চালু করছেন?

বিশ্ব ব্যাংক প্রমাণ করার পরও প্রধানমন্ত্রী আবুল হোসেনকে রক্ষা করতে চায় এমন অভিযোগ করে রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেছেন, সম্প্রতি দুদক বলছে যে পদ্মা সেতু প্রকল্পে কিছু দুর্নীতি ধরা পড়েছে। কিন্তু দুদক আবুলের বিরুদ্ধে মামলা দিতে পারছে না কারন  প্রধানমন্ত্রীই তাকে দেশপ্রেমিক সার্টিফিকেট দিয়েছেন।

সংগঠনের সভাপতি মেজর মেহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অবস্থান ধর্মঘটে আরো উপস্থিত ছিলেন যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বাধীনতা ফোরাম সভাপতি আবু নাসের মো. রহমতুল্লাহ, স্বদেশমঞ্চের সভাপতি মামুনুর রশীদ খানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট