Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

গাড়িতে হামলা- মার্কিন দূতাবাসের নিন্দা, দুঃখ প্রকাশ জামায়াতের

জামায়াতে ইসলামীর ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলাকালে গতকাল ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের গাড়িতে হামলা হয়েছে। সকাল সাড়ে আটটার দিকে খিলক্ষেত ফ্লাইওভারের নিচে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্র শিবিরের পিকেটেররা মার্কিন দূতাবাসের একটি গাড়িতে ঢিল ছোড়ে। এ সময় তারা গাড়িটিতে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগেরও চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস তীব্র নিন্দা জানিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছে। ওদিকে এ ঘটনার দায় স্বীকার করে জামায়াতে ইসলামী দুঃখ প্রকাশ করেছে। দলটির ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান এক বিবৃতিতে বলেছেন, মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ৮.৪৫ মিনিটে একদল লোক ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের একটি গাড়ির ওপর হামলা চালালে গাড়ির ড্রাইভার সামান্য আহত হন এবং গাড়িটিরও ক্ষয়ক্ষতি হয়। অভূতপূর্ব এই দুঃখজনক ঘটনার ব্যাপারে প্রাথমিক তদন্ত শেষে এর দায়দায়িত্ব আমরা গ্রহণ করছি এবং নিন্দা জানাচ্ছি। এ ঘটনার জন্য দূতাবাস ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের নিকট আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি এবং এর ক্ষতিপূরণ দিতে আমরা প্রস্তুত।
মার্কিন দূতাবাসের নিন্দা: ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের গাড়িতে হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দূতাবাসের মুখপাত্র ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছেন। গতকাল সন্ধ্যায় মানবজমিনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে এ প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়। দূতাবাসের প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন অফিসার কেলি ম্যাককার্থি হামলার তীব্র নিন্দা ও দুষ্কৃতকারীদের জবাবদিহির আওতায় আনার দাবি করেন। একই সঙ্গে তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ একটি মৌলিক গণতান্ত্রিক অধিকার হলেও সহিংসতার পক্ষে কোন যুক্তি থাকতে পারে না। যুক্তরাষ্ট্র সব সময় সহিংসতার বিরুদ্ধে। ঘটনার বিষয়ে দূতাবাস কর্মকর্তা বলেন, সকালে রাজধানীর এয়ারপোর্ট রোড ও প্রগতি সরণির কাছাকাছি এলাকায় দূতাবাসের একটি গাড়িতে হামলা হয়। এতে গাড়ির চালকসহ আরোহী কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা চলছে। আহতদের জন্য দূতাবাস কর্মকর্তারা বিচলিত এবং তাদের সুস্থতা প্রার্থনা করা হচ্ছে জানিয়ে কেলি ম্যাকার্থি বলেন, বিনা উস্কানিতে দূতাবাসের গাড়িতে হামলার যে ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্র কঠোর ভাষায় এর নিন্দা জানায়। কূটনীতিকদের নিরাপত্তাকে যুক্তরাষ্ট্র সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। কূটনৈতিক ব্যক্তি ও মিশনের সম্পত্তির ওপর যে কোন ধরনের হামলাকে গোটা আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়ের ওপর হামলা বলেও গণ্য করে দেশটি। হামলার ঘটনা তদন্তে মেট্রোপলিটন পুলিশ কাজ করছে জানিয়ে দূতাবাস মুখপাত্র আমেরিকার নাগরিক ও মার্কিন দূতাবাসের সম্পত্তি রক্ষায় সরকার ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাহায্য-সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানান।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট