Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘মানুষ হত্যা করে, গাড়ি পুড়িয়ে যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধ করা যাবে না’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জামায়াতে ইসলামসহ বিরোধী দলকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, মানুষ হত্যা করে, সন্ত্রাস করে, গাড়ি পুড়িয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করা যাবে না। এ বিচারের জন্য দেশের মানুষ আওয়ামী লীগকে রায় দিয়েছে। মানুষ এ বিচারের পক্ষে। তাই যতোই চেষ্টা করা হোক বিচার হবে।
রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত ১৪ দলের বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। বৈঠকের সূচনা বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু হয়েছে। বিচারের রায় হবে। যে রায়ই হোক তা বাস্তবায়ন হবে। মানুষ খুন করে বোমাবাজি করে এই বিচার বন্ধ করা যাবে না।
জামায়াতের হরতালে বিএনপি’র সমর্থন দেয়ার সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, য্দ্ধুাপরাধের বিচার থামাতেই জামায়াত-শিবিরের তা-ব। তাদের মূল পার্টি বিএনপি। যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর কাজেই তারা মাঠে নেমেছে। তারা যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করবে এটিই স্বাভাবিক। এটি স্পষ্ট হলে গেলো হরতালে সমর্থন দিয়ে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা যুদ্ধাপরাধীদের মুক্তির দাবিতে সমাবেশ ডাকে। এই অবৈধ দাবির সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি বলে হরতাল ডাকে। সেই হরতালে বিএনপি আবার নৈতিক সমর্থন দেয়। তার মানে তারা নৈতিকভাবে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চায় না। তারা তাই প্রকাশ করলেন।
জামায়াত ৭১ এ মানুষ হত্যা করেছে। তাদের শেষ আঘাত ছিল দেশের বুদ্ধিজীবীদের ওপর। আর এই জামায়াতের পক্ষে তারা অবস্থান নিয়েছে। এর চেয়ে লজ্জার আর কি হতে পারে।
বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন। অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, গণআজাদী লীগের হাজী আবদুস সামাদ, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নুরুর রহমান সেলিম, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডা. অসিত বরণ, গণতান্ত্রিক মজদুর পার্টির জাকির হোসেন ও ন্যাপের এডভোকেট এনামুল হক।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট