Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

হরতালে সারাদেশে ব্যাপক সংঘর্ষ, অগ্নিসংযোগ : ১৩ জেলায় আটক ১০৩

 ৪ ডিসেম্বর: দিনভর গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, সড়ক অবরোধ, ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে জামায়াতে ইসলামীর ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল। সকাল থেকে সারা দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত কর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এঘটনায় ১৩ জেলায় প্রায় ১০৩ জন জামায়াত-শিবির কর্মী আটক হয়েছে।

বিস্তারিত আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে-
পাবনা : পাবনা পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ২৫জন জামায়াত-শিবির নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার  করেছে। সোমবার দিবাগত রাত ও মঙ্গলবার হরতাল চলাকালে সকাল ১১টায় পর্যন্ত তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্র্রেফতারকৃতরা হলো সদর উপজেলার দ্বীপচরের নবাই মন্ডলের ছেলে সেলিম(৩০), ভাঙ্গুরা উপজেলার বেতুয়ান গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে তারেক হোসেন(১৭), নাটোর বাগাতিপাড়ার আব্দুল কাদেরের ছেলে বদিউজ্জামান শিবলু(১৫), পাবনা সদরে উপজেলার বকসিপুর গ্রামের আব্দুল ওহাব সেখের ছেলে আলাউদ্দিন(১৭), কোলাদী শহিদুল ইসলামের ছেলে আমিনুল ইসলাম(১৫), ভাড়ারা নাজিম উদ্দিন শেখের ছেলে রাজিব হোসাইন(১৭), জাফরাবাদ মৃত হোসেন মোল্লার ছেলে ইকরাম আলী মোল্লা (৬০),  চাটমোহর কাটাখালি গ্রামের আব্দুল আজিজ খলিফার ছেলে রাশেদুল ইসলাম(২৫)। এছাড়া বিএনপি কর্মী চকপৌলানপুর গ্রামের আবু বকর সিদ্দিকির ছেলে আসাদুল ইসলাম খোকন(৩০)।   পাবনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন জানান, হরতালে নাশকতা ঠেকাতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ছাড়া ঈশ্বরদী থানা পুলিশ ৪জন সাঁথিয়া থানা পুলিশ ৫জন, আটঘরিয়া থানা পুলিশ ৪জন চাটমোহর থানা পুলিশ ১জন ও সুজানগর থানা পুলিশ ২জনকে গ্রেফতার করেছে।
রাজশাহী : রাজশাহীতে মঙ্গলবার সকালে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের কর্মীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শিবিরের কর্মীরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করার চেষ্টা করে। পুলিশ রাবার বুলেট ছোড়ে। ঘটনাস্থল ও পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে পুলিশ ১৩ জনকে আটক করেছে।
বগুড়া : বগুড়ায় হরতাল চলাকালে পুলিশের গাড়িসহ ৪টি যানবাহন ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। মহাসড়কের কিছু ট্রাক চলাচল করতে দেখা গেলেও আন্ত: জেলা বাস চলেনি। বিভিন্ন এলাকা থেকে ১২ জন জামায়াত কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক ছকির উদ্দিন জানান, সকাল ১০টায় শহরতলীর পল্লী বিদ্যুত সমিতির সামনে বগুড়া রংপুর মহাসড়কে একটি ট্রাকে জামায়াত-শিবির কর্মীরা আগুন লাগিয়ে দেয়। ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করা হয়।
শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম জানায়, সকাল সাড়ে ৭টায় ঢাকা- বগুড়া মহাসড়কের শেরপুরের গাড়ীদহ এলাকায় হরতালকারীদের হামলায় পুলিশের গাড়িসহ একটি ট্রাক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সকাল ৮টায় শেরুয়া বটতলা এলাকায় তারা আরও দুটি ট্রাক ভাংচুর করে। এখানে একজন গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
শাজাহানপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক মাহমুদুল আলম জানান, পিকেটিংয়ের সময় ফুলতোলা এলাকা থেকে দুজন, গোহাইল এলাকার কাবাষট্টি থেকে চারজনকে আটক করা হয়েছে।
শিবগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) লুতফর রহমান জানান, বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের চকপাড়া থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।
দুপচাঁচিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম জানান, দুপচাঁচিয়ায় সিও অফিস বাসস্ট্যান্ড থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে।

বরিশাল : ভোরে নগরীর বিভিন্ন স্থানে টায়ারে অগ্নিসংযোগ করেছে জামায়াত-শিবিরের পিকেটাররা।
কোতয়ালী মডেল থানার এসআই গোলাম কবির পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে জামায়াত-শিবিরের ৭ কর্মী আটক করা হয়েছে।

কক্সবাজার : কক্সবাজারে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত জামায়াত-শিবিরের পাঁচ জনকে আটক করা হয়েছে।
কক্সবাজার সদর থানার ওসি জসীম উদ্দিন জানান, শহরে একজন এবং ঈদগাঁওয়ে চার জনকে আটক করা হয়েছে।
সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শিবির কর্মীরা কোটবাজার এলাকায় ৩টি মিনিবাস ভাংচুর করে বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয়রা। তবে এ ঘটনা সঠিক নয় বলে উখিয়া থানার ওসি আপেলা রাজু নাহা জানান।

কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মীর রেজাউল আলম জানান, সকালে পিকেটিংয়ের চেষ্টা করার সময় দুই জামাত কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কুড়িগ্রাম : উলিপুর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, হরতালের সমর্থনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির অভিযোগে জামায়াতের ৩ জনকে আটক করা হয়।
সকাল সাড়ে ৮টায় কুড়িগ্রাম-ভুরুঙ্গামারী সড়কের পাটেশ্বরী এলাকায় শিবির কর্মীরা গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ সৃষ্টি করে।
কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি ময়নুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে শিবির কর্মীরা পালিয়ে যায়।

বাগেরহাট : বাগেরহাটের পুলিশ সুপার খন্দকার রফিকুল ইসলাম বলেন, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বাগেরহাট-খুলনা সড়কের মেগনিশতলা এলাকায় জামায়াত ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীরা জড়ো হয়ে রাস্তায় টায়ারে আগুন ধরিয়ে যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। এ সময় ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে বাগেরহাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা দুটি বাস ভাংচুর করে তারা। ঘটনাস্থল থেকে জামায়াতের এক কর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

রাজবাড়ী : নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ভোরে রাজবাড়ীতে জামায়াতের তিন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
রাজবাড়ী সদর থানার এসআই ওয়াদুদ আলম এবং গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই মো. শাহীন খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নীলফামারী : জলঢাকা থানার ওসি তাপস কুমার পণ্ডিত জানান, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জলঢাকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক পরীক্ষা বন্ধের চেষ্টা করায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জে হরতালের নামে নাশকতা সৃষ্টির পরিকল্পনার অভিযোগে জেলা জামায়াতের আমির মাওলানা মুখলেসুর রহমানসহ (৫৪) জামায়াত-শিবিরের পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি মোজাম্মেল হক জানান, বেলা সাড়ে ১২টায় হবিগঞ্জ শহরতলীর পশ্চিম ভাদৈ এলাকার বাসা থেকে মুখলেসুরকে আটক করা হয়। অন্যদের শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে আটক করা হয় বলে জানায় পুলিশ।

ফেনী : আতংক ভর করে সাধারন জনগন মাঠে নামেনি। স্কুল কলেজ দোকান-পাঠ ও তিন চাকার রিক্সা পর্যন্ত চলেনি ফেনী শহরে। ব্যাংক বীমা অফিস খুললেও লেনদেনে মানুষ ছিলনা বললেই চলে। সকাল থেকে জামায়াত-শিবির কর্মীরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কসহ বিভিন্ন সড়কে ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে পিকেটিং করছে। শিবির কর্মীরা মহাসড়কের মহিপালে একটি কভার্ড ভ্যান এবং এসএসকে রোডে দুটি রিক্সা ভাংচুর কারার পর অগ্নি সংযোগ করে করেছে। এসময়  ফেনী পৌরসভার কভার্ড ভ্যান ভাংচুর চালক আহত হলে তাকে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি কার হয়েছে। পিকেটিংয়ের অভিযোগে ৯ শিবির কর্মীকে পুলিশ আটক করেছে।
শহরে সব ধরনের যানবাহন, দোকানপাঠ, স্কুল কলেজ বন্ধ রয়েছে। শহরের গুরুত্বপূর্ন এলাকা সমুহে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
গত সোমবার রাতে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে রাজু, মামুন, সানা উল্যাহ, আসগর আলী, সুমন ও আনোয়ার নামে ৬ জনকে এবং সকালে সোনাগাজীতে আমানত, ছাগলনাইয়াতে মঞ্জুর ও তুষার নামে ৯ জনসহ মোট ১৫ জন জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

চট্টগ্রাম : হরতাল কর্মসূচী দক্ষিন চট্টগ্রামে সবকটি উপজেলায় কঠোর ভাবে পালিত হয়েছে। রাস্তায় যানবাহন চলাচল না করলেও টায়ার জালিয়ে ও ব্যারিকড দিয়ে কঠোর ভাবে পিকেটিং করতে দেখা গেছে জামায়াত শিবির নেতা কর্মীদের। সকালে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশন, পদুয়া তেওয়ারী হাট, সাতকানিয়ার হাসমত আলী সিকদারের দোকান, মৌলভীর দোকান, কেরানীহাট-বান্দরবান সড়কের বাড়িঘাটা, চন্দনাইশের কয়েকটি স্থানে, পটিয়া, আনোয়ারা ও বাশঁখালী উপজেলায় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে হরতাল পালন করে। হরতালকারীদের ঠেকাতে পুলিশের কার্যক্রম চোখে পড়ার মত। পুলিশ সাতকানিয়া,লোহাগাড়, বাশখালী ও বোয়ালখালী থেকে মোট১০ জন জামায়াত শিবির কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) ফরিদুল ইসলাম। এর মধ্যে বাশখালী উপজেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর শহিদুল মোস্তফাও রয়েছে। সূত্রে প্রকাশ, সকালে কেরানীহাট-বান্দরবান সড়কের বাড়িঘাটা এলাকায় হরতালকারীদের দেয়া টায়ারে আগুন ও ব্যারিকেড তুলে দেওয়ার জন্য গেলে পুলিশকে লক্ষ্যে করে ইট-পাটকেল ছুটে জামায়াত শিবির নেতা কর্মীরা। পুলিশও তাদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ছুড়ে। এ ঘটনায় জামায়াত-শিবিরের পাচঁ কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো ওসমান গনি (২৬) রুহুল আমিন (৩৫) ও আক্তার হোসেন (৩৫)। এর মধ্যে ওসমান স্থাণীয় দোকানদার বলে জানা গেছে। এছাড়াও চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চারা বটতল নামক স্থানে পুলিশ- জামায়াত সংঘর্ষ হয়েছে। তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি। থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ইসমাল পিপিএম (বার) ঘটনার সত্যাতা স্বীকার করেছেন। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা শিবিরের সভাপতি শাহাদাত হোসেন বলেন,‘দক্ষিণ চট্টগ্রামে নজিরবিহীন ভাবে হরতাল পালিত হচ্ছে। রাস্তায় জামায়াত শিবিরের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও অংশ নিচ্ছে’। সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসমাইল পিপিএম (বার) বলেন, হরতালকারীরা ভোরে কিছু কিছু জায়গায় ব্যারিকেড দিলেও আমরা গিয়ে তা সরিয়ে দিয়েছে। বর্তমানে কোন পিকেটার রাস্তায় নেই। এদিকে মার্দাশার বাংলা ক্লাবের সামনে হরতালের সর্মথনে মিছিল করেছে ইসলামী ছাত্র শিবির। মিছিলে নেতৃত্ব দেন দক্ষিন জেলা শিবির সভাপতি মাহাদাত হোসেন। দক্ষিন চট্টগ্রামে গ্রেপ্তারকৃত ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট