Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ছাত্রলীগকে সংযত হওয়ার নির্দেশ দিলেন হানিফ

 ৩ ডিসেম্বর : সম্প্রতি  ছাত্রলীগের নেতিবাচক কর্মকান্ডে সাধারণ জনগণের নেতিবাচক ধারায় বেগম খালেদা জিয়া ছাত্রলীগের  বিরুদ্ধে বিষোদগার করতে পেরেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ। এ জন্য নেতিবাচক কর্মকান্ড পরিহার করে ছাত্রলীগকে  সংযত হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।
সোমবার ঢাকা জেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রলীগের প্রতি তিনি এ নির্দেশ দেন।
ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক এম এ এইচ আবিদের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, সংসদ সদস্য নসরুল হামিদ বিপু, তৌহিদ জং মুরাদ, বেনজির আহমদ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
ছাত্রলীগই আওয়ামী লীগের পতনের জন্য যথেষ্ট খালেদা জিয়ার এই আক্রমণাত্মক বক্তব্যের  সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ২০০১- ২০০৬ সালে অব্যাহত আন্দোলনের মাধ্যমে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ খালেদা জিয়ার ক্ষমতার ভিত কাপিয়ে দিয়েছিল। তারা খালেদা জিয়ার আতঙ্ক।
তিনি বলেন, ২০০৬ সালে ইয়াজউদ্দিনকে তত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা করে ষড়যন্ত্রমূলক নির্বাচনের পরিকল্পনাও ছাত্রলীগ নস্যাৎ করে দিয়েছে । তাই খালেদা জিয়া সুযোগ পেলেই ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন।
জীবন সায়াহ্নে আমার আর কিছু চাওয়ার নেই খালেদা জিয়ার এই বক্তব্যের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রীর এই বিশেষ সহকারি  বলেন,  জাতির কাছে খালেদার কিছু চাওয়ার নেই বলে আবারও তিনি  ক্ষমতায় আসতে চান। এর চেয়ে মিথ্যাচার আর হতে পারেনা। প্রকৃতপক্ষে খালেদা জিয়ার এই জাতিকে আর কিছু দেওয়ারও নেই।
এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, জামায়াত পাকিস্তানের ধারক-বাহক আর বিএনপি পাকিস্তানের এজেন্ট। পাকিস্তানের কাছ থেকে টাকা নিয়ে তারা এদেশে পাকিস্তানের এজেন্ডা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে ব্যার্থ রাষেট্র পরিণত করতে চায়।।
সম্মেলনস্থলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে তৌহিদ জং মুরাদের পক্ষে শ্লোগান দেয় ছাত্রলীগ। এতে মঞ্চে উপস্থিত অতিথিদের সবাই বিব্রত বোধ করে। সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাদের বিশৃঙ্খলা না করতে বারবার নির্দেশ দিলেও  কোন কাজ হয়নি । পরে দলের সভাপতি তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিলে শান্ত হয়ে উঠে পুরো পরিবেশ।
হানিফ ছাত্রলীগের এই আচরণের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, ইউরোপে মানুষ মরে গেলে টাকা দিয়ে লোক ভাড়া করা হয় কান্নাকাটি করার জন্য আর আজকে ছাত্রলীগকে দেখে মনে হচ্ছে ভাড়ায় এসে কোন বিশেষ ব্যাক্তির পক্ষে তারা শ্লোগান দিচ্ছে। এটা ছাত্রলীগের কাছে কাম্য হতে পারেনা।
তিনি  বলেন, ছাত্রলীগ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করবে। এ জন্য আগামী দিনে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী জামায়াত শিবির প্রতিরোধে ছাত্রলীগকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।
সম্মেলনে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী আব্দুল মান্নান খান বলেন, খালেদা জিয়া যতই চেষ্টা করুক যুদ্ধাপরাধীদের তিনি বাঁচাতে পারবেনা। এই বছরের মধ্যেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে।
ছাত্র, যুবক, কৃষকসহ সকল স্তরের জনগণ একত্র হয়ে যুদ্ধাপরাধীদের  বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান তিনি।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট