Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘ডিসেম্বরে হরতালের কথা কি প্রধানমন্ত্রী ভুলে গেছেন’

স্টাফ রিপোর্টার, ৩ ডিসেম্বর : “দেশের কোন স্থানে জামায়াতের সভা সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না” স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর এ বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন একটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের কর্মসূচিতে বাঁধা দেওয়া স্বৈরাচারী মনোভাবের প্রকাশ।

সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৮ দলীয় জোটের মহাসচিব পর্যায়ের সভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, জামায়াত গত ২৯ নভেম্বর চিঠির মাধ্যমে প্রশাসনের অনুমতি চেয়েছিল। কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন কোন ধরনের চিঠি দেওয়া হয় নি। শান্তিপূর্ন কর্মসূচিতে বাঁধা প্রদান করতেই এ ধরনের মিথ্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে তারা। এ সময় তিনি জামায়াতকে সভার অনুমতি দেওয়ার আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, “আজ সোমবার পল্লবীতে বিকাল ৪টায় বিএনপির একটি শাখা অফিস উদ্বোধন করতে আমার আর স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়ার যাওয়ার কথা ছিল। যার জন্য পুলিশের কাছে চিঠিও পাঠানো হয়েছিল এবং তারা মৌখিক অনুমতিও প্রদান করেছিল। কিন্তু অনুষ্ঠানস্থলে স্টেজ ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে আর সরকারের পক্ষ থেকে সেখানে সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে উর্দ্ধতন নির্দেশে সমাবেশ বন্ধ করা হয়েছে।”

সরকারের অগণতান্ত্রিক মনোভাব সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, যখন চতুর্দিক থেকে বিক্ষোভ দানা বাধতে শুরু করেছে তখন বাধ্য হয়ে সরকার নির্যাতনের স্টিমরোলার চালাতে শুরু করেছে। কিন্তু বিএনপির শান্তিপূর্ন কর্মসূচিতে বাঁধা দিলে এর দায়ভার সরকারকেই বহন করতে হবে।

এ সময় জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্ম পরিষদের সদস্য আব্দুল্লাহ মো. তাহের সাংবাদিকদের বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য এবং শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীতে বাঁধা দেওয়ার প্রতিবাদে আগামী কাল সারা দেশে সকাল সন্ধ্যা হরতালের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জামায়াত।

হরতালে বিএনপি সমর্থন জানাবে কিনা সাংবাদিকদের এ ধরনের এক প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, জামায়াতের কর্মসূচীর সময় এখনো শেষ হয় নি। যথা সময়ে বিএনপির পক্ষ থেকে এ প্রশ্নের জবাব দেওয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, যুগ্ন মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সহ ১৮দলীয় জোটের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট