Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

জামায়াত-শিবির ছাড়লে বাংলার মানুষের মনে একটু জায়গা হতে পারে : খালেদাকে হাসিনা

নিউজমিডিয়াবিডি.কম, মৌলভীবাজার,১ ডিসেম্বর: আগামী নির্বাচনে নৌকার জন্য ভোট চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় গেলে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হবে।
শনিবার মৌলভীবাজারে আওয়ামী লীগের জনসভায় তিনি বিএনপি, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের কঠোর সমালোচনা করে বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া) বলেছেন তার সন্তানরা সত জীবনযাপন করে। আপনারা খোজ নিয়ে জানুন লন্ডনে তারেক রহমান যে বাড়ীতে থাকেন সেটিসহ তার কয়টা বাড়ি আছে, কয়টা গাড়ি আছে, কয়টা রেস্টুরেন্ট আছে। সত হলে এত বলাসী জীবন যাপনের অর্থের উৎস কী?
মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী দল জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গ ছাড়তে বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এক দিনের সফরে মৌলভীবাজারে গিয়ে বেশ কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন এবং ভিত্তিস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।
জনসভায় খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য শেখ হাসিনা বলেন, “জনগণের মনের কথা বোঝার চেষ্টা করুন। জামায়াত-শিবির ছাড়ুন। তাহলে যদি বাংলার মানুষের মনে একটু জায়গা হতে পারে। শেখ হাসিনা বলেন, “যতই চেষ্টা করেন, যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে পারবেন না।”

জনসভাস্থল মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমবেত কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আপনারা কি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান?”
সমস্বরে ‘হ্যাঁ’ ধ্বনির পর শেখ হাসিনা আবার বলেন, “আপনারা হাত তুলে বলেন, আপনারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান কি না?” তখন সমবেত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা হাত তুলে বলেন, ‘হ্যাঁ’।
ডিসেম্বর মাসে আগামী ৮ ডিসেম্বর সড়ক অবরোধের কর্মসূচি দেয়ায় বিরোধী দলের সমালোচনাও করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন. “তারা সেই মাসে কর্মসূচি দিয়েছে, যে মাসে পরাজিত শক্তিকে (পাকিস্তানি বাহিনী) আমরা আত্মসমর্পণে বাধ্য করেছিলাম। বিরোধীদলীয় নেতা বিজয়ের মাসে যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষায় কর্মসূচি দিয়েছেন।”

নির্দলীয় সরকার পদ্ধতি পুনর্বহালে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। আওয়ামী লীগ বলে আসছে, এই কর্মসূচি কার্যত যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষার জন্য।
জনসভায় সিলেটের উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়ার কথা তুলে ধরে চারদলীয় জোট সরকার সেই ধারাবাহিকতা রক্ষা না করায় তাদেরও সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, “আওয়ামী লীগ দেশের জনগণ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে আছে।”
জনসভার আগে মৌলভীবাজার চিফ জুড়িশিয়াল ভবন, জাতীয় মহিলা সংস্থা ভবন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নাধীন টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনের ভিত্তিস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী মৌলভীবাজারে নবনির্মিত পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এবং ২৫০ শয্যার হাসপাতাল উদ্বোধন করেন।

এছাড়া শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৫০ শয্যার হাসপাতাল এবং উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ কলেজের ও শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের ভিত্তিস্থাপনও করেন প্রধানমন্ত্রী।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট