Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বাইরের কোন মহল চক্রান্ত করে আগুন দিয়েছে: তাজরিনের মালিক

কারখানার ভেতর বা বাইরের কোন মহল চক্রান্ত করে তাজরিন গার্মেন্টে কারখানায় আগুন লাগিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রতিষ্ঠানটির মালিক দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেছেন, ঘটনার সঙ্গে কারখানার মধ্যম পর্যায়ের কর্মকর্তারা জড়িত। ব্যাংক ঋণ থেকে রা পাওয়া বা বীমার টাকা পেতে মালিকপ আগুন লাগিয়েছে এমন অভিযোগ নাকচ করে তিনি বলেছেন,  আমার কোন প্রকল্প ঋণ নেই। এলসির  বিপরীতে দুটি ব্যাংক আমার কাছে কিছু টাকা পাবে। আমার কারখানার একটি বীমা করা আছে, সেটা মাত্র ১৮ কোটি টাকার। এই অল্প টাকার জন্য কারখানায় আগুন দেয়ার কোন প্রশ্ন ওঠে না। বুধবার বাংলাদেশ তৈরী পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) কার্যালয়ে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এরআগে বিজিএমইএ নেতারা তার সঙ্গে কথা বলেন। শ্রমিকদের বকেয়া বেতনসহ সববেতন আগামী ১লা ডিসেম্বরের মধ্যে পরিশোধ করে দেয়ার ঘোষণা করেন তিনি। কান্নাজড়িত কণ্ঠে দেলোয়ার বলেন, আগুন লাগার পর সাড়ে ৭টার দিকে (২৪শে নভেম্বর) আমি কারখানাতে গিয়েছিলাম। আমার চোখের সামনে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছিল। শ্রমিক-কর্মচারীরা আমাকে পাশের বাড়িতে বসিয়ে রেখে এক পর্যায়ে চলে যেতে বলে। আমি চলে আসি। আমার কারখানায় সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করে নির্মাণ করা হয়েছে। অবহেলা বা গাফলতির কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। আগুন লাগার পর ভবনের তৃতীয় তলায় কেন তালা লাগানো হলো? সেটার প্রশ্ন তোলেন দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, কারা এটা করল? দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমার ব্যবসার কারণে সারা দুনিয়ায় আজ তুলকালাম হয়ে গেছে। কত দেশ বিদেশ থেকে সাংবাদিক আসছে। এগুলো কি আমাদের জন্য ভালো। আমাদেরতো ব্যবসা করতে হবে।
অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে সহায়তার অঙ্গিকার করে দেলোয়ার বলেন, টাকা পয়সা দিয়ে যদি তাদের সাহায্য করতে পারি, আমি নিজে তৃপ্তি পাব। যাদের ছোট বাচ্চা আছে তারা লেখাপড়া করতে পারবে। যাদের বৃদ্ধ মা বাবা আছে কিন্তু আয় করার কেউ নেই তারা কিছু করে খেতে পারবে। আমাদের তাদের জন্য করবো।
এদিকে, তাজরিন ট্রাজেডিতে আহত শ্রমিকদের চিকিৎসা সংক্রান্ত সহায়তা নেয়ার জন্য বিজিএমইএ অফিসে যোগাযোগ করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে বিজিএমইএ। এছাড়া বিজিএমইএ তাজরিন কারখানার শ্রমিকদেরকে কাজের জন্য পার্শ্ববর্তী কারখানাগুলোতে যোগাযোগ করার পরামর্শ দিয়েছে। তারা চাকরির জন্য যোগাযোগ করলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ঐসব কারখানায় তারা কাজ পাবেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট