Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নিবন্ধিত ৩৮ রাজনৈতিক দলের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের ৭দিন ব্যাপি সংলাপ শুরু

পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী নিবন্ধিত ৩৮টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সংলাপ শুরু হয়েছে ২৬ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০টায়।

 

 

এদিন থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ৭ দিনব্যাপী এ সংলাপ প্রতিদিন সকাল ১০টায় ইসি সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

সংলাপের প্রথম দিন আমন্ত্রণ পেয়েছে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, ইসলামী ঐক্যজোট, ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলন, কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগ ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)।

 

 

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে সীমানা পুনর্নিধারণ ও ভোটার তালিকা হালনাগাদ নিয়ে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত চলছে।

 

ইসি এর আগে নির্বাচনের কাজে সংশ্লিষ্ট বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও), সুশীল সমাজ ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকদের সঙ্গে সংলাপ করেছে।

শুক্রবার ইসি-সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপের সময়সূচি ঘোষণা করা হয়।

 

সময়সূচি অনুযায়ী, সাত দিনে ৩৮টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাদাভাবে সংলাপে বসবে ইসি।

ইসির জনসংযোগ পরিচালক এম আসাদুজ্জামান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সংলাপের প্রথম দিন উল্লিখিত ৬টি দলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সংলাপের চতুর্থ দিন ২৯ নভেম্বর আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে আওয়ামী লীগকে। আর বিএনপির সঙ্গে সংলাপ হবে পঞ্চম দিন ২ ডিসেম্বর।

 

 

দ্বিতীয় দিন ২৭ নভেম্বর গণতন্ত্রী পার্টি, গণফ্রন্ট, গণফোরাম, খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ও জাকের পার্টির সঙ্গে সংলাপ করবে ইসি।

 

 

২৮ নভেম্বর তৃতীয় দিনে আমন্ত্রণ পেয়েছে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), জাতীয় পার্টি, জাতীয় পার্টি (জেপি), জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি।

২৯ নভেম্বর চতুর্থ দিন সংলাপে বসতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল (পিডিপি), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে।

 

 

পঞ্চম দিন ২ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) সঙ্গে সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

৬ষ্ঠ দিন ৩ ডিসেম্বর সংলাপ হবে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (বাংলাদেশ ন্যাপ) সঙ্গে।

 

 

শেষ দিন ৪ ডিসেম্বর আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলাদেশ মুসলিম লীগ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এমএল), বিকল্পধারা বাংলাদেশ ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টিকে (এলডিপি)।

 

 

এর আগে বৃহস্পতিবার এক জরুরি বৈঠকে নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাদাভাবে সংলাপে বসার সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন।

 

 

উল্লেখ্য, এর আগে সব দলের সঙ্গে চার দফায় চারটি বৈঠকে সংলাপের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেছিল কমিশন। কিন্তু জামায়াতের সঙ্গে একই বৈঠকে বসতে রাজি হয়নি সিপিবি। এ নিয়ে তারা ইসির সংলাপ বর্জনের হুমকি দিলে জটিলতা তৈরি হয়।

সে সময় নিবন্ধিত ৩৮টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ২৬ নভেম্বর থেকে সংলাপের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেছিল ইসি। এ উপলক্ষে দলগুলোর প্রধান, মহাসচিবসহ তিনজন করে প্রতিনিধিকে আমন্ত্রণও জানানো হয়েছিল।

 

 

আগের সূচিতে চার দফায় ২৬, ২৮, ২৯ নভেম্বর ও ২ ডিসেম্বর এ সংলাপ অনুষ্ঠানের কথা ছিল।

ধারাবাহিক সংলাপের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার নির্বাচনের কাজে সংশ্লিষ্ট এনজিওর সঙ্গে সংলাপে বসে ইসি। সকাল ১১টায় এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

 

 

এর আগে সুশীল সমাজ ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকদের সঙ্গেও সংলাপ করে নির্বাচন কমিশন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট