Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

খুলনা টেস্ট : দিন শেষ আরেকটি পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ

খুলনা টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে ৩৫ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ্।  দিনের প্রথমভাগে বল হাতে চার উইকেট নিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি এনেছিলেন সাকিব আল হাসান। স্পর্শ করেছিলেন টেস্ট ক্রিকেটে দেশের পক্ষে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের মাইলফলক। ব্যাট হাতেও তিনি ছিলেন নির্ভরতার প্রতীক। ৮১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকেরা যখন ইনিংস পরাজয়ের আশঙ্কায় দুলছিল ঠিক তখনই ব্যাট হাতে ঝলসে উঠলেন তিনি। নাসির হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে ১৪৪ রানের জুটি গড়ে যখন তিনি লড়াইয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন দেশকে, ঠিক তখনই পেরমলের বল অযথাই তুলে মারতে গিয়ে ধরা পড়লেন টিনো বেস্টের হাতে। সেঞ্চুরির লক্ষ্যটাতো পূরণ হলোই না, দিনের একেবারে শেষভাগে আউট হয়ে লড়াই করার সেই স্বপ্নটিও ফিকে করে দিলেন তিনি। নাসির যদিও অপরপ্রান্তে ৬৪ রানে অপরাজিত, কিন্তু পঞ্চমদিনকে সামনে রেখে বড় আরও একটি পরাজয়ই ভবিতব্য মনে হচ্ছে বাংলাদেশের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে বাংলাদেশ এখনো ৩৫ রানে পিছিয়ে। রোববার এই ৩৫ রান হয়ত পেরিয়ে যাওয়া যাবে, কিন্তু হাতে ৪ উইকেট রেখে ক্যারিবীয়দের সামনে লড়বার মতো কোনো স্কোর বাংলাদেশ দিতে পারবে—এমন আশা একটু বেশিই হয়ে যায়।
টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতাই এই টেস্টে বাংলাদেশ দলকে এই পরিস্থিতির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। নাজিমউদ্দিন আবারও ব্যর্থ। তিনি উইকেটে স্থায়ী হয়েছিলেন মাত্র এক বল। তাঁর আউটের ধরন দেখে মনে হয়েছে, এক মুহূর্তের জন্য তিনি নিজের মধ্যে ছিলেন না। তামিম ইকবাল ভালো শট খেলেন—আমরা সবাই তা জানি। কিন্তু এই শট খেলাটা টেস্টে যে তাঁর বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে বার বার সেটা তিনি নিজে বুঝতে পারছেন না। শাহরিয়ার নাফীস শর্ট অব লেংথ বলে নিজের দুর্বলতা আবারও প্রকাশ করে দিলেন। তিনিও অতিরিক্ত শট খেলার অভিযোগ থেকে মুক্ত নন। নাঈম অফস্ট্যাম্পের বাইরের একটি বল ছেড়ে দেওয়ার সময় ভাবতেও পারেননি যে বলটা লেট সুইং করবে। এ ধরনের আউট কেবল বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরাই কেন হন? এই প্রশ্নের উত্তর নেই। মুশফিকুর রহিম দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়ে পেরমলের একটি বলকে যেভাবে বেরিয়ে এসে মারতে গেলেন, তা দেখে মনে হয়েছে তিনি এক মুহূর্তের জন্য ভুলে গিয়েছিলেন যে তিনি টেস্ট না টি-টোয়েন্টি খেলছেন।
৪ উইকেটে ৫৬৪ রান নিয়ে টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগের দিন ব্যক্তিগত ১০৯ রানে অপরাজিত থাকা শিবনারায়ণ চন্দরপলকে আউট করা সম্ভব হয়নি। ইনিংস ঘোষণার সময় ১৫০ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বড় সংগ্রহের কারিগর মারলন স্যামুয়েলস। ৪৫৫ বলে ২৬০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন তিনি। ড্যারেন ব্রাভো করেন ১২৭ রান।
ক্যারিবীয়দের ইনিংসের শুরুটা অবশ্য ভালো ছিল না। দলীয় ৩৭ রানে প্রথম উইকেটে হারিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রুবেল হোসেনের বলে সাকিব আল হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন কাইরন পাওয়েল (১৩)। দলীয় সংগ্রহে আর ছয় রান যোগ হতে বিদায়ঘণ্টা বাজে আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইলের (২৫)। তবে তৃতীয় উইকেটে স্যামুয়েলস-ব্রাভোর ৩২৬ রানে জুটিতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ চলে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের হাতে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট