Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনায় জড়িতদের বহিষ্কার ও গ্রেফতারের নির্দেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

 স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর বলেছেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে রগ কাটার ঘটনায় আমরা ছাত্র নামধারী ৬ জনকে এরই মধ্যে গ্রেফতার করেছি। বাকিদের আমরা দমন করতে চাই যাতে করে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।
তিনি বলেন, ছাত্র নামধারী যারা শিক্ষার নামে গুণ্ডামি-ভণ্ডামি ও ছাত্রদের হাত-পায়ের রগ কেটেছে তাদের বহিষ্কার ও গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার ১২টা ৩০ মিনিটে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থা: তুলনামূলক’ গোলটেবিল আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত এক নেতাকে কুপিয়ে হাত-পায়ের রগ কেটে দেয় দূর্বৃত্তরা । আহত ছাত্রলীগ নেতার নাম আখেরুজ্জামান তাকিম। বুধবার রাত ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের খালেদা জিয়া হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। তাকিমকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ছাত্রলীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা নগরীর লক্ষ্মীপুর ও ঘোষপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় মিছিল বের করে। এ সময় ঘোষপাড়া মোড়ে ছাত্রশিবির পরিচালিত কোচিং সেন্টার রেটিনায় অগ্নিসংযোগ ও লক্ষ্মীপুরে মোড়ে ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভাংচুর করা হয়।
ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত ৮টার সময় ছাত্রলীগ নেতা তাকিম, বৃত্ত ও আরিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের খালেদা জিয়া হলের সামনে দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। এ সময় ১০-১২ দূর্বৃত্ত তাদের ওপর হামলা চালায়। ঘটনার সময় তারা তাকিমকে এলোপাতাড়ি রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে তার দু’পায়ের ও একটি হাতের রগ কেটে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় তারা।
এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম রুবেল বলেন, ‘শিবির আধিপত্য বিস্তার ও ক্যাম্পাস দখলের জন্য এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল হক জাকির বলেন, ‘শিবিরই এ নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে।’ রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হুসাইন বিপু বলেন, ‘ছাত্রশিবির পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট