Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বাসায় ফিরেছে পরাগ মণ্ডল

চিকিতসাশেষে পরাগ মণ্ডল বুধবার বাড়ি ফিরেছে। বিকেল চারটার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতাল থেকে মায়ের সঙ্গে নিজ বাড়িতে ফেরে ছয় বছরের এই শিশু। ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যার পশ্চিমপাড়া কালীবাড়িতে তাই বইছে খুশির বন্যা। বাড়িতে আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভিড়। কেউ কেউ নিয়ে এসেছেন মিষ্টি। তাঁদের চোখের জল আনন্দঅশ্রু হয়ে ঝরছে।
বুধবার সকাল থেকেই বিমল মণ্ডলের বাড়িতে তাঁর ছেলে পরাগ মণ্ডল ও স্ত্রী লিপি মণ্ডলকে একনজর দেখার জন্য আত্মীয়স্বজন, বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা ভিড় জমায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় যেন জনস্রোতে রূপ নেয়। বাড়ির সামনের রাস্তায় পরাগের দুই বোন পিনাকি ও পিয়ালী, দাদি সাবিত্রী মণ্ডলসহ অসংখ্য নারী-পুরুষ ও শিশু সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছিল। পরাগের বড় বোন পিনাকি বাঁ-পায়ে ব্যান্ডেজ অবস্থায় বাড়ি থেকে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে সবার সঙ্গে রাস্তায় এসে দাঁড়ায়। তার হাতে ছিল গাঁদা ফুলের মালা ও গোলাপজল। পরাগের ছোট বোন পিয়ালীর হাতে ছিল ফুলের পাপড়ি। দাদি সাবিত্রী মণ্ডল সোনা-রুপার পানি ও দুধ নিয়ে অপেক্ষায় থাকেন। আত্মীয়স্বজনের কারও হাতে ফুল, কারও হাতে গোলাপজল। সাবিত্রী মণ্ডল আদরের নাতির জন্য মানত করেছিলেন, ফিরে এলে দুধ দিয়ে গোসল করাবেন। সবার অপেক্ষা, কখন ফিরছে পরাগ। ঘড়ির কাঁটা যখন চারটা ছুঁই ছুঁই, তখনই একটি বাড়ির সামনে এসে থামল মাইক্রোবাস। তর সইছে না উত্সুক জনতার। পরাগকে যে একনজর দেখতে হবে। প্রথমে গাড়ি থেকে নামলেন মা লিপি মণ্ডল। তারপর বাবার কোলে চড়ে গাড়ি থেকে নামল পরাগ। ফুল, গোলাপজল ছিটিয়ে আর দুধ দিয়ে গোসল করিয়ে বরণ করা হলো পরাগকে।
বাড়িতে পৌঁছে লিপি মণ্ডল মন্দিরের কাছে গিয়ে মাথা ঠুকে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় তিনি বারবার সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করেন।
১১ নভেম্বর সকালে স্কুলে যাওয়ার সময় কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা পশ্চিমপাড়ায় মা, বোন ও গাড়িচালককে গুলি করে অপহরণ করা হয় প্রথম শ্রেণীর ছাত্র পরাগকে। ১৩ নভেম্বর রাতে রাজধানীর আটিবাজার সড়ক থেকে পরাগকে উদ্ধার করে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
ছেলে ও স্ত্রীর বাড়িতে আসার প্রতিক্রিয়ায় বিমল মণ্ডল বলেন, ‘এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া, তিনি আমার ছেলেকে ফিরিয়ে দিয়েছেন। আমি মিডিয়ার কাছে সবচেয়ে বেশি কৃতজ্ঞ। আমি আপনাদের সহযোগিতায় আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারব। যত দিন বেঁচে থাকব আমি মিডিয়াকে স্মরণ রাখব।’
লিপি মণ্ডল বলেন, ‘আমি আমার ছেলেকে কোলে ফিরে পেয়েছি। এর চেয়ে বড় পাওয়া আমার আর কিছু হতে পারে না।’ গণমাধ্যমকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আপনারা আমাদের পরিবারের জন্য কষ্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, মিডিয়াসহ দেশের সব মানুষকে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’
ফিরে আসায় কেমন লাগছে—পরাগ মণ্ডলের কাছে জানতে চাইলে সে অপলক দৃষ্টিতে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে জানায়, ‘ভালো। আগামী সপ্তাহে স্কুলে যাব।’
পরাগের দাদি সাবিত্রী মণ্ডল বলেন, ‘আগামীকাল বৃহস্পতিবার নাতনি পিয়ালীর বার্ষিক পরীক্ষা শুরু হবে। কিন্তু সে আতঙ্কে স্কুলে যেতে চাচ্ছে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘নাতি ও বউ বাসায় এল, এই আনন্দ অতি কষ্টের।’ গণমাধ্যমকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনারা আমাদের পরিবারের জন্য যতটুকু করেছেন সেটা ভুলবার নয়। আগামীতে আমাদের পরিবারের পাশে থেকে আমাদের দেখে রাখবেন।’

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট