Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নাবিলা চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ে তুষার ও মীম

 হাজারো দর্শকের মন মাতিয়ে নাবিলা চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ের মুকুট জয় করে নিয়েছে যৌথভাবে মেহরাজ হক তুষার ও মোহনা মোস্তফা মীম। প্রথম রানার আপ হয়েছেন প্রথমা দাস এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে মন্দিরা চক্রবর্তী। নূপুরের ঝংকারে গতকাল সেরা নাচিয়ে নির্বাচনে দেশের সবচেয়ে বড় আয়োজন অনুষ্টিত হয়ে গেল। আলোর ঝলকানি আর সুরের মূর্ছনা সেরা নাচিয়েদের পারফরম্যান্স মাতিয়ে রেখেছিল গোটা স্টেডিয়াম। টানা পরীক্ষা আর প্রাপ্তির মাহেন্দ্রক্ষণে ঘোষণা করা হয় সেরা নাচিয়েদের নাম। মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামের জমকালো ‘মহাউৎসব’- এ নাবিলা সেরা নাচিয়ে-২০১২ বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করা হয়। তুষার ও মীম সেরা নাচিয়ে খেতাবের পাশাপাশি উভয়েই আরো জিতে নিয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা। প্রথম রানার আপ প্রথমা জিতেছেন তিন লাখ এবং দ্বিতীয় রানার আপ মন্দিরা জিতেছেন দুই লাখ টাকা। এর পাশাপাশি ইমপ্রেস অডিও ভিশন থেকে ভিসিডি ও ডিভিডি বের করার সুযোগের পাশাপাশি ইমপ্রেস টেলিফিল্মের বিভিন্ন চলচ্চিত্র এবং চ্যানেল আইয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশনের সুযোগ পাচ্ছেন এ তিন বিজয়ী। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, পরিচালক জহির উদ্দিন মাহমুদ মামুন এবং নাবিলা বুটিকস্ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীমা নবী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিযোগীতার তিন বিচারক মুনমুন আহমেদ, ফেরদৌস ও পূর্ণিমা। অনুষ্ঠানের শুরুটা ছিল একেবারেই ভিন্নরকমের আয়োজনে।
ডায়াসে সাজানো টুম্বা, পারকেশন, ঢোল, ড্রামসসহ নানা ধরণের যন্ত্র। যন্ত্র সঙ্গীতের তালে তালে নাচছে আলো। কখনো আলো ঝলমল কখনো বা আলো আাঁধারীতে পুরো ষ্টেডিয়াম!- এভাবেই শুরু হয় মহাউৎসবের মহা আয়োজন। কানায় কানায় পূর্ণ দর্শকের চোখ তখন স্টেজে। যেখানে শুরু হয়েছে মুনমুন আহমেদের পরিচালনায় কত্থক নৃত্য।
কথন নৃত্য শেষ হতে না হতেই ৪০ জন ছেলে মেয়ে ঢোল, রণপা, সাওতাল ও তান্ডব উৎসবে মেতে উঠে। পুরো ষ্টেজ ও ষ্টেডিয়ামজুড়ে উৎসবের এক অন্যরকম আনন্দ তখন ভয়ে বেড়াচ্ছিল। এর পরপরই স্বাগত ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দিতে আসেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর ও নাবিলা বুটিকস্ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীমা নবী। তাদের বক্তব্য শেষে নাবিলা চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ে ২০১২-এর সেরা ১০- শীতল, তুষার, মীম, প্রথমা, তন্বী, সাজিন, রাসেল, হেনা, সাবি ও মন্দিরা পারফরমেন্স করে ‘মন চায় মন চায়’ এবং ‘লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প’ গানের সঙ্গে। এরপর বড় পর্দায় এক নজের উঠে আসে সেরা নাচিয়ের পথচলা।
তানজিল-এর কোরিওগ্রাফিতে ঈগল ড্যান্স দলের সঙ্গে মনোমুগ্ধকর পরিবেশনায় অংশ নেন পূর্ণিমা ও আরেফিন শুভ। তাদের পরপরই মুনমুন আহমেদ ও তার দল পরিবেশন করেন একটি শাস্ত্রীয় নৃত্য। এরপরে ঐহিত্যবাহী পুতুল নাচ। অংশ নেয় ২০ জন কিশোর কিশোরী। পুতুল নাচের পরিবেশনার শেষে ফেরদৌস ও নিপুন আসেন মঞ্চে। তাদের পরিবেশনার পর মঞ্চে আসেন তিন প্রজন্মের  নৃত্যশিল্পী রাহিজা খাতুন ঝুনু, জিনাত বরকতউল¬াহ, দিপা খন্দকার, ডলি ইকবাল, শেলী, পাঁপড়ি, ফাতেমা ও প্রীতি। তারা ‘যার ছায়া পড়েছে মনেরও আয়নাতে’ গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেন। এরপরই প্রতিযোগিতার তিন বিচারক মুনমুন আহমেদ, ফেরদৌস ও পূর্ণিমা তাদের জন্য নির্ধারিত আসনে বসেন। তাদের সাথে এক আসনে বসেন মহাউৎসবের সম্মানিত বিচারক জিনাত বরকতউল্লাহ ও ডলি ইকবাল। মঞ্চে তখন সেরা নাচিয়ের সেরা ১০ প্রতিযোগী। প্রত্যেক প্রতিযোগী গানের সঙ্গে আলাদা আলাদা পারফরমেন্স করেন এবং দর্শকদের কাছে ভোট চায়। এরপর আলাদা আলাদা পরিবেশনায় অংশ নেন লিখন ও নাদিয়া, সোহেল ও মীম এবং ইমন ও মোনালিসা। এরপর সোহেল রহমানের নৃত্য পরিবেশনায় আরব্য রজনীর রূপকথা মঞ্চে তুলে আনেন লাক্স চ্যানেল আই সুপার ষ্টার সামিয়া, সামিহা ও সোমা। পুরো অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন তানিশা।
উল্লেখ্য, সারাদেশ থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে চার হাজার প্রতিযোগী এ প্রতিযোগতায় নাম অন্তর্ভূক্তি করে। প্রাথমিক পর্যায়ে সাতটি বিভাগ থেকে দ্বিতীয় পর্বের জন্য ৮১ জন প্রতিযোগী বেছে নেওয়া হয়। এই ৮১ জন প্রতিযোগীকে চারটি গ্রুপে ভাগ করে শুরু হয় অডিশনের তৃতীয় পর্ব। সেখান থেকে আবাসিক ক্যাম্পের জন্য ২১ জন প্রতিযোগীকে বাছাই করা হয়। সেখান থেকে বাছাই করা হয় ১৬ জন প্রতিযোগীকে। সেখান থেকে চারজন বাদ দিয়ে ১২ জনকে নিয়ে শুরু হয় পরবর্তী রাউন্ড। এই পর্বে বাদ পড়ে যায় আরো দ্ইুজন প্রতিযোগী। টিকে থাকে ১০ প্রতিযোগী। তারা হলেন- মেহরাজ হক তুষার, মোহনা মোস্তফা মীম, প্রথমা দাস, তন্বী দাশ, সাদিয়া জাহিন সাজিন, রাসেল আহমেদ, হেনা হোসেন, শায়লা হোসেন সাবি, সাজিয়া শারমীন শীতল ও মন্দিরা চক্রবর্তী।
শুরু হলো সেরাকণ্ঠ : শীঘ্রই শুরু হতে যাচ্ছে কনিয়া-চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ ২০১২ প্রতিযোগিতা। এবারের প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন তিন গুণী শিল্পী সৈয়দ আবদুল হাদী, সাবিনা ইয়াসমীন ও কুমার বিশ্বজিৎ। সেরা নাচিয়ে অনুষ্ঠানে এই প্রতিযোগিতার শুরুর ঘোষণা দেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান  শাইখ সিরাজ। এ সময় পৃষ্ঠপোষক সংস্থা গ্লোব সফট ড্রিংকস ও এএসটি বেভারেজের চেয়ারম্যান হারুর অর রশীদ এবং বিচারকমন্ডলী উপস্থিত ছিলেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট