Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নাগরিক তদন্ত কমিটি বিএনপি’র

স্টাফ রিপোর্টার: গণমিছিল কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে ২৯ ও ৩০শে জানুয়ারি পুলিশের গুলিতে চারদলীয় ঐক্যজোটের ৫ কর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায় নাগরিক তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিএনপি। এ কমিটি সংশ্লিষ্ট জেলার সাধারণ মানুষ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের মতামত শুনবে। কারা গুলি করেছে তা চিহ্নিত করে প্রতিবেদন দেবে। গতকাল দুপুরে বিএনপি’র নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কমিটি গঠনের কথা জানান।
তিনি বলেন, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর ও রাজশাহীতে পুলিশের গুলিতে ৫ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় সরকার বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি করেনি। যে পুলিশি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে তারা নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করতে পারবে না। ওই কমিটি পুলিশকে রক্ষা করবে। ফলে প্রকৃত দোষীরা চিহ্নিত হবে না। মির্জা আলমগীর বলেন, বিএনপি মনে করে- এ ঘটনা দেশের মানুষের কাছে আরও পরিষ্কার হওয়া প্রয়োজন। সেদিন পুলিশ যে ভূমিকা নিয়েছে, তা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। তাই বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া নাগরিক তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। তিনি বলেন, সেদিনের কিছু ছবি প্রমাণ করে কিভাবে পুলিশ বন্দুক উঁচিয়ে গুলি করছে। তাদের বুটের সঙ্গে আধুনিক ভয়ঙ্কর ছুরি লাগানো। এ সময় তিনি পুলিশের বুটের নিচে ‘ছুরি’ থাকার প্রমাণ হিসেবে কয়েকটি আলোকচিত্রও গণমাধ্যমকর্মীদের দেখিয়ে প্রশ্ন রেখে বলেন, এরা কোন দেশের পুলিশ? এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা মনে করি এ নাগরিক কমিটি শতভাগ নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারবে। সুপ্রিম কোর্ট বার কাউন্সিল সভাপতি এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন- বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি প্রফেসর আবদুল মান্নান মিয়া, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ, বিরোধীদলীয় এমপি এডভোকেট হাফিজুর রহমান ও অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা জজ আবু তালেব। বিরোধী দলের ১২ই মার্চকে কেন্দ্র করে সরকারি দলের ‘পাল্টা কর্মসূচি’র সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ক্ষমতাসীন দল গণতন্ত্রের রীতি-নীতির তোয়াক্কা করছে না। আওয়ামী লীগের একটি সংগঠন ১২ই মার্চ ঢাকায় আমাদের মহাসমাবেশের দিন পাল্টা কর্মসূচি দিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে সরকার দলীয় নেতা ও এমপি-মন্ত্রীরা গণতান্ত্রিক শিষ্টাচার বহির্ভূত কথা বলছেন। তিনি বলেন, আমরা প্রমাণ করেছি, আমরা গণতান্ত্রিক ও নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাস করি। গত তিন বছরে আমরা মাত্র সাতটি হরতাল দিয়েছি। কিন্তু বিগত সময়ে আওয়ামী লীগ ৭৭টি হরতাল দিয়েছিল। আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনাই সে সময়ে লগি-বৈঠা নিয়ে কর্মীদের ঢাকায় আসতে বলেছিলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সে সময় ১০-১১ জনকে হত্যা করা হয়েছিল। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, মিজানুর রহমান মিনু, বরকত উল্লাহ বুলু, রিজভী আহমেদ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী, শ্রমিক দলের কার্যকরী সভাপতি আবুল কাশেম চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, সিরাজগঞ্জে খালেদা জিয়ার জনসভায় ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্তে ২০১০ সালের অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে ও পটুয়াখালীতে এক সময়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর সরকারদলীয় কর্মীদের হামলার ঘটনায় ৩০শে অক্টোবর পৃথক দু’টি তদন্ত কমিটি করেছিল বিএনপি। তবে এসব কমিটি শেষ পর্যন্ত কোন রিপোর্ট দেশবাসীর সামনে উপস্থাপন করেনি।

ফেব্রুয়ারিতে ৩ জেলা সফর করবেন খালেদা
এদিকে ১২ই মার্চের কর্মসূচি সফল ও নেতাকর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ততা বাড়াতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ফেব্রুয়ারি মাসেই তিনটি জেলা সফর করবেন। জেলাগুলো হচ্ছে- চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর ও লালমনিরহাট। এর মধ্যে ১৩ই ফেব্রুয়ারি চাঁদপুর যাবেন। সেখানে গত ২৯শে জানুয়ারি গণমিছিলে পুলিশের গুলিতে নিহতদের পরিবারকে সমবেদনা জানাবেন তিনি। এরপর বিকালে জনসভায় বক্তব্য দেবেন। খালেদা জিয়ার চাঁদপুর সফরের কর্মসূচির সমন্বয় করছেন দলের যুগ্ম মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান। ওদিকে গণমিছিলের ঘটনায় চাঁদপুর জেলা বিএনপি’র যেসব নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল তারাও জামিন নিয়ে এলাকায় গিয়ে সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড শুরু করছেন। চাঁদপুরের পর ১৮ই ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুর যাবেন খালেদা জিয়া। সেখানেও গণমিছিলে নিহতদের পরিবারগুলোকে সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি একটি জনসভায় বক্তব্য দেবেন। এ ছাড়া ২৭শে ফেব্রুয়ারি লালমনিরহাটের কালেক্টরেট মাঠে জেলা বিএনপি আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য দেবেন। লালমনিরহাট জেলা বিএনপি’র সভাপতি আসাদুল হাবিব দুলু জানান, খালেদা জিয়ার লালমনিরহাটের জনসভা হবে এ যাবৎকালের মধ্যে বৃহত্তম। এ সভাকে ঘিরে রংপুর বিভাগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


3 Responses to নাগরিক তদন্ত কমিটি বিএনপি’র

  1. sikiş izle

    March 13, 2012 at 11:52 am

    I used to be curious about your following put up admin actually necessary this blog super astounding blog

  2. amcik

    March 14, 2012 at 7:33 am

    I was curious about your future article admin definitely wanted this blog super astounding webpage

  3. smackdown oyunları

    March 14, 2012 at 3:29 pm

    i bookmarked you in my browser admin thank you so much i will likely be looking for your future posts