Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

গাজীপুর-৪ উপনির্বাচন: পুলিশ প্রহরায় আফসার

গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আফসার উদ্দিন আহমদ খানের সমর্থক রায়েদ ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আবদুল মান্নানকে গতকাল সকালে হাইলজোড় বাজারে গণসংযোগ করার সময় প্রতিপক্ষের সমর্থকরা বাধা দেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আফসার উদ্দিন গত সোমবার সিইসির মতবিনিময় সভায় নিজের নিরাপত্তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলে গতকাল থেকে প্রশাসন তার নিরাপত্তার জন্য গণসংযোগের সময় পুলিশ মোতায়েন করেছে। এতে তিনি প্রশাসনের কাছে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। এ দিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সিমিন হোসেন রিমির নৌকা, স্বতন্ত্র প্রার্থী এডভোকেট আফসার উদ্দিন আহমদ খানের মোরগ ও কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী এডভোকেট আসাদুল্লাহ বাদলের কাস্তে মার্কার পক্ষে শেষ মুহূর্তে প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকরা প্রতিদিনই ব্যাপক গণসংযোগ, জনসভা, পথসভা চালিয়ে যাচ্ছেন।
রিমির জনসভা ও গণসংযোগ: গতকাল বিকালে চাঁদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মিজানূর রহমান মাস্টারের সভাপতিত্বে ভাকুয়াদী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগে উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও উপনির্বাচন পরিচালনার প্রধান সমন্বয়কারী তোফায়েল আহমেদ এমপি। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী সিমিন হোসেন রিমি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি, মেহের আফরোজ চুমকী এমপি, জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও টঙ্গী পৌর মেয়র আজমত উল্লাহ খান, সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী, শ্রীপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ, সাবেক এমপি মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, মাহমুদুল আলম খান বেণু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজগর রশিদ খান, আবদুর রশিদ সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আমানত হোসেন খান, গাজীপুর জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুল ইসলাম লিটন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী বাবুল প্রমুখ। এর আগে সিমিন হোসেন রিমি কড়িহাতা ইউনিয়নে চরখামের, ইকুরিয়া, হিজুলিয়া, পিরিজপুর, বিহাইদুয়ার, কড়িহাতা, রামপুর গ্রামে দিনভর গণসংযোগ করেন এবং দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটারদের কাছে দোয়া, সমর্থন ও নৌকায় মার্কায় ভোট প্রার্থনা করেন। এ সময় ভোটাররা এলাকার রাস্তার উন্নয়ন, বিদ্যুৎ ও গ্যাস দেয়ার দাবি জানান। রিমি ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা আমাকে যত বেশি ভোট দেবেন, আমি তত বেশি কাজ করতে পারবো। অনেক ভোট পেয়ে নির্বাচিত হতে পারলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলতে পারবো আমাকে এত ভোটার ভোট দিয়েছেন- আমাকে এলাকা উন্নয়নের জন্য বেশি কাজ দিতে হবে। আপনাদের অধিক ভোট হবে আমার কাজ করার শক্তি। তিনি ভোটারদের আরও জানান, আপনাদের খোঁজখবর রাখার জন্য প্রত্যেক এলাকায় আমার লোক থাকবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সমর্থক, দলীয়-নেতাকর্মীরা কেউ কোন ভোটারকে ভয়-ভীতি বা হুমকি দিচ্ছে না। আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি আশা করি সব ভোটার নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন। তখন তার সঙ্গে ছিলেন কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা আবদুর রশিদ সরকার, কড়িহাতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও কাপাসিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন, কড়িহাতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুব মোর্শেদ আফাজ, সাধানর সম্পাদক নাজমুল ইসলাম মতিসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। আগামীকাল বিকালে কাপাসিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে রিমির নৌকা মার্কার শেষ নির্বাচনী জনসভা।
আফসারের অভিযোগ ও গণসংযোগ: স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট আফসার উদ্দিন আহমদ খান গতকাল মিয়ার বাজার, আমরাইদ বাজার, টোক বাজার, উলুসারা, আড়ালিয়া, পাঁচুয়া, ঘোষের কান্দি, ডুমদিয়া, গিয়াসপুর বাজারে দিনভর গণসংযোগ করেন এবং কয়েকটি বাজারে হাটসভা করে ভোটারদের কাছে মোরগ মার্কায় ভোট, দোয়া ও সমর্থন প্রার্থনা করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার সমর্থক রায়েদ ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আবদুল মান্নানকে গতকাল সকালে হাইলজোড় বাজারে গণসংযোগ করার সময় প্রতিপক্ষের সমর্থকরা বাধা দেয়। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচার দেয়া হচ্ছে। গত ১১ই আগস্ট রমজান মাসে পাইলট স্কুল হল রুমে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের সভা ১২ জন প্রার্থী ছিলাম। আমরা বলেছিলাম আমাদের মধ্যে যে কাউকে মনোনয়ন দিলে আমরা তার পক্ষে কাজ করবো। ১২ জন প্রার্থীর মধ্যে রিমি ছিল না। আমি শ্রদ্ধেয়া ভাবী সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীনের নির্দেশে নির্বাচনের মাঠে এসেছি। তিনি আরও বলেন, দলীয়ভাবে যে পদ্ধতিতে মনোনয়ন দেয়ার নিয়ম ছিল তা মানা হয়নি। পুলিশ প্রহরার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি আবশ্যই নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসনের কাজে সন্তুষ্ট। এ সময় তার সফরসঙ্গী ছিলেন তার ছোট ছেলে হাছিব আহমেদ খান, হাবিবুর রহমান, কাজী সিরাজুল ইসলাম, এডভোকেট সারোয়ার-ই-কায়নাত, সানা উল্লাহ, নূরুল ইসলাম প্রমুখ।
আসাদুল্লাহ বাদলের (কাস্তে) গণসংযোগ: বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পর্াটির গাজীপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় প্রার্থী এডভোকেট আসাদুল্লাহ বাদল গতকাল উপজেলার লাখপুর, কপালেশ্বর, নামিলা, আড়ালিয়া, ঘোষের কান্দি, ইকুরিয়া, যাবর, গ্রামে দিনভর গণসংযোগ ও হাট সভা করে ভোটাদের কাছে কাস্তে মার্কায় ভোট, দোয়া ও সমর্থন প্রার্থনা করেন। পরে বিকালে বিভিন্ন বাজারে হাটসভা করেন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি জয়নাল খান, কেন্দ্রী ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মানবেন্দ্র দেব, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী আলতাফ হোসেন, উপজেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি আতাউর রহমান মাস্টার, আসলাম খান, আহসান হাবিব লাবলু, জিয়া উল কবির খোকন, কমিউনিস্ট পার্টি নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন, মতিউর রহমান মাস্টার প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট