Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

চেয়ারম্যানের বাছাই কমিটি প্রত্যাখান গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালকদের

ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর: গ্রামীণ ব্যাংকে নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগে পরিচালনা পর্ষদের গৃহীত প্রস্তাব উপেক্ষা করে ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানটিতে সরকার নিযুক্ত  চেয়ারম্যান ‘মনগড়া’ভাবে সিলেকশন কমিটি (বাছাই কমিটি) গঠন করেছেন, শুক্রবার এ কথা জানিয়েছেন ব্যাংকটির ১৩ পরিচালকের নয় জন। এই পরিচালকরা সবাই নারী এবং

বার্তা২৪ ডটনেটকে তাহসিনা খাতুন বললেন, ‘‘চেয়ারম্যান আমাদের নয় নারী পরিচালকের কোনো কথাই শুনছেন না। আমরা এই নোবেল বিজয়ী ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানটির ৯৭ শতাংশের মালিক ৮৪ লাখ ঋণগ্রহীতার প্রতিনিধি হিসেবে পরিচালনা পরিষদে মনোনীত। অথচ এমডি নিয়োগ সহ কোনো ব্যাপারেই আমাদের একদম পাত্তাই দিচ্ছেন না চেয়ারম্যান।’’

এই পরিচালক তাহসিনা খাতুনকে এমডি বাছাই কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছিলেন চেয়ারম্যান। তবে তাহসিনা বলেন, চেয়ারম্যান অধ্যাপক খন্দকার মোজাম্মেল হক তার মনগড়া এই বাছাই কমিটিতে যে তাকে রেখেছেন তা তিনি জানতে পেরেছেন সংবামাধ্যমে প্রকাশিত খবরে। বাছাই কমিটি থেকে নিজের নাম বাদ দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে শুক্রবার দুপুরে একটি বিবৃতিও দিয়েছেন তাহসিনা খাতুন। বিবৃতিতে তিনি বলেন, বাছাই কমিটিতে কারা থাকবেন সে বিষয়ে পরিচালনা পরিষদের সিদ্ধান্ত অগ্রাহ্য করে চেয়ারম্যানের নিজস্ব প্রস্তাব জোর করে গছানোর চেষ্টা তারা মানেননি এবং এখনো তারা এর প্রতিবাদ করছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার মিরপুরে গ্রামীণ ব্যাংক ভবনে পরিচালনা পর্ষদের ৯৭তম সভা শেষে  ব্যাংকের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের জানান, পরিচালনা পর্ষদের পক্ষ থেকে তাহসিনা খাতুন ছাড়াও এমডি বাছাই কমিটিতে আছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক বাকী খলিলী, সাবেক আমেরিকান এক্সপ্রেস ব্যাংক বাংলাদেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট শিরিন আকতার মইনুদ্দিন ও বেসরকারি ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম শাহ আলম সরওয়ার।

এর প্রতিবাদে রাতেই এক বিবৃতিতে নয় পরিচালক জানান, ব্যাংকটির সাবেক এমডি ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে প্রধান করে যেই বাছাই কমিটি তারা প্রস্তাব করেছিলেন- তা অগ্রাহ্য করেছেন চেয়ারম্যান। তারা, জানান এই বাছাই কমিটির প্রস্তাব তারা গত ২৬ জুলাই ৯৩তম বোর্ড সভায়ও চেয়ারম্যানকে দিয়েছিলেন।

পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা বার্তা২৪ ডটনেটকে বলেন, ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. ইউনসূ ও পরিচালনা পরিষদ সদস্য তাহসিনা খাতুন ছাড়া বাছাই কমিটির সদস্য হিসেবে তারা বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. আকবর আলি খান এবং ব্যাংকের সাবেক দুই পরিচালক কামরুল হাসান ও খালেদ খানের নাম প্রস্তাব করেছিলেন।

কিন্তু তখন ওই সভার কার‌্যবিবরণীতে তা অন্তর্ভুক্ত করেননি চেয়ারম্যান। এরপর গত বৃহস্পতিবারের সহ পাঁচটি বোর্ড সভায় উত্থাপন করলেও প্রস্তাবটি সভার কার্যবিবরণীর অন্তর্ভুক্ত করেননি চেয়ারম্যান।

বৃহস্পতিবারের বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী নয় পরিচালক হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আর এখন গ্রামীণ ব্যাংক অধ্যাদেশ সংশোধন করে বাছাই কমিটি গঠনে আমাদের ক্ষমতা কেড়ে নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে আমাদের ৮৪ লক্ষ অংশীদারের ৯৭ শতাংশ মালিকানা ও এমডি নিয়োগের অধিকার হরণ করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানানো ছাড়া অন্য কোনো কর্মসূচির চিন্তা এখন ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানটির অংশীদারদের নেই বলে জানিয়েছেন তাহসিনা খাতুন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট