Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে ২৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ

নিউ ইয়র্ক, ২১ সেপ্টেম্বর: জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৭তম অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাত দিনের সফরে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে আসবেন। এসময় ৬৩ জন সফর সঙ্গীসহ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে থাকছে ২৫ জনের একটি ব্যবাসায়ী প্রতিনিধিদল। পরে ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার পর (বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৪টা) যে কোনো সময়  জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে ভাষণ দেবেন তিনি।  প্রতিবছরের মত এবারো শেখ হাসিনা ভাষণ দেবেন বাংলা ভাষায়।

প্রধানমন্ত্রী সফর উপলক্ষে ২০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তৃতা করেন জাতিসংঘের নিউ ইয়র্ক সদর দফতরে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ.কে. আব্দুল মোমেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মিশনের উপস্থিত ছিলেন মিশনের মিনিস্টার (কালচারাল) অধ্যাপক মমতাজউদদীন আহমদ, কাউন্সিলর মো. তৌহিদুল ইসলাম, কাউন্সিলর সামিয়া আঞ্জুম, ও প্রেস সচিব মামুন-অর-রশিদ।
লিখিত বক্তব্যে ড. মোমেন বলেন, ২৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টায় এমিরেটসের একটি ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি (জেএফকে) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী নিউ ইয়র্কের গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে অবস্থান করবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. মোমেন বলেন, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পিস মডেল ‘এমপাওয়ারিং পিপল’ এবং ‘মানসিক প্রতিবন্ধী’ বিষয়ক প্রস্তাব আকারে গ্রহণ করা হবে। এবারের অধিবেশনে ১শ’ ২৯টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধান এবং ১শ’ ৯৩টি সদস্য দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন। এবারের জাতিসংঘ সাধারণ সভার মূল প্রতিপাদ্য ‘সমঝোতার ভিত্তিতে বিরোধ নিষ্পত্তি’।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাত হলেও কোনো আনুষ্ঠানিক বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

প্রসঙ্গত, সফরকালে তার সফরসঙ্গীদের মধ্যে থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, অ্যাম্বাসেডর-এ্যাট-লার্জ এম জিয়াউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব শেখ মো. ওয়াহিদুজ্জামান ও প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ। এছাড়াও ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারর্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) সভাপতি এ কে আজাদের নেতৃত্বে একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলও প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গীদের মধ্যে থাকবেন।

বিস্তারিত সফরসূচি
২৪ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী সকাল ৯ টা থেকে ‘আইনের শাসন বিষয়ক’ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের নিয়ে এক উচ্চ পর্যায়ের আলোচনা সভায় যোগ দিবেন। একই দিন বিকেলে আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের আমন্ত্রণে ‘অংশীদারিত্বে সমতার ভিত্তিতে ভবিষ্যত’ শীর্ষক আলোচনায় আমন্ত্রণে অংশ নেবেন। পরে সন্ধ্যায় বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র প্রধানদের সম্মানে দেয়া আমেরিকান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও মিশেল ওবামার পার্টিতে অংশ নেবেন।

২৫ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টায় জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের অভ্যর্থনায় অংশ নেবেন। সকাল ৯টায় ৬৭তম সাধারণ অধিবেশনের উদ্বোধনীতে অংশ নিবেন। সকাল ১১টায় মিশরের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবে। বেলা একটায় সেনেগালের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক। পরে বিকেলে বিশ্ব শান্তি বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে তিনি সভাপতিত্ব করবেন। সন্ধ্যায় সন্ত্রাসবাদ ও দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে কংগ্রেসম্যান পিটার কিং-এর সাথে বৈঠক করবেন।

২৬ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টায় জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবেলা বিষয়ক এক সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। পরে ‘এডুকেশন ফাস্ট’ শীর্ষক কর্মসূচিতে যোগ দিবেন। সন্ধ্যায় হোটেল ম্যারিয়টে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্বর্ধণায় যাবেন।

২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টায় অটিজম বিষয়ক সেমিনার এবং সন্ধ্যায় জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন।

২৮ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর ৬৫ তম জন্মদিন। এদিন কোনো কর্মসূচি নেই, পরিবারের সঙ্গে একান্তে সময় কাটাবেন প্রধানমন্ত্রী।

২৯ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ মহাসচিব এবং বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সাক্ষাতে মিলিত হবেন।

৩০ সেপ্টেম্বর বিকাল ৪ টায় মিশন মিলনায়তনে প্রবাসে বাংলাদেশী সাংবাদিকদের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে মিলিত হবেন। ওই দিন রাতেই রাতে প্রধানমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশ্যে নিউইয়র্ক ত্যাগ করবেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট