Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

পল্লী কবির ‘আসমানী’ আর নেই

জসীমউদ্দীনের ‘আসমানী’ কবিতার নাম চরিত্র আসমানী মারা গেছেন। শনিবার ভোর রাতে ফরিদপুর সদর উপজেলার রসুলপুরে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৯৭ বছর। আসমানী ছয় মেয়ে, দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
এর আগে গত ২৩শে জুন আসমানী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে উন্নতর চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেও তার অবস্থা অবনতি হলে ২৭শে জুলাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে গত ৫ই আগস্ট বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

উল্লেখ্য মানবজমিন এর ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি লায়েকুজ্জামান ২০০৩ সালে পল্লী কবি জসীম উদ্দীনের আসমানী কবিতার বাস্তব চরিত্র আসমানীকে রসুলপুর গ্রামে খুঁজে বের করেন। ২০০৩ সালের ২রা জানুয়ারি মানবজমিন-এ আসমানীকে নিয়ে প্রথম সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ব্যাপক সাড়া পরে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত ও ভারতের কলকাতা থেকে লোক আসতে থাকে আসমানীকে দেখতে। আসমানীর দিন বদলে যায়। বিভিন্ন বেসরকারি সাহায্য সংস্থা ও সরকারের তরফ থেকে আসামীকে সহযোগিতা দেওয়া হয়। তার জন্য নতুন বাড়ি নির্মিত হয়। শ্রমমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পাট মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী আসামানীকে ব্যক্তিগত সহযোগিতা দেন। ২০১২ সালে গোড়ার দিকে আসমানী গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক হেলালুদ্দিন আহমদ আসমানীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ করেন।
পল্লী কবি জসীম উদ্দীন আসমানীকে নিয়ে আসমানী কবিতাটি লিখেন ১৯৪২ থেকে ১৯৪৫ সালের মধ্যে। আসমানী কবিতা প্রথম প্রকাশিত হয় জসীমউদ্দীনের এক পয়সার বাঁশি কাব্যগ্রন্থে ১৯৪৫ সালে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট