Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

আলেপ্পো ঘিরে রেখেছে ২০ হাজার সেনা

সিরিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর আলেপ্পোয় সেনাবাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যে গতকাল রোববারও তীব্র লড়াই হয়েছে। বিদ্রোহীদের দমনে সেনাবাহিনী শিগগিরই পূর্ণাঙ্গ অভিযানে নামবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আলেপ্পোকে ঘিরে ২০ হাজার সেনা অবস্থান নিয়েছে। খবর এএফপি, রয়টার্স ও বিবিসি অনলাইনের।
গুরুত্বপূর্ণ শহর ও বাণিজ্যিক রাজধানী আলেপ্পো দখল করা নিয়ে বেশ ক’দিন ধরেই বিদ্রোহীদের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের অনুগত সেনাবাহিনীর তুমুল সংঘর্ষ চলছে। গতকালও সেনাবাহিনী বিদ্রোহীদের অবস্থান লক্ষ্য করে যুদ্ধবিমান, হেলিকপ্টার, কামান ও ট্যাংক নিয়ে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে। ২০ জুলাই থেকে আলেপ্পোয় সরকারি বাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যে লড়াই চলছে। লড়াইটিকে সিরিয়ার দেড় বছরব্যাপী গৃহযুদ্ধের ভবিষ্যৎ নির্ধারণী যুদ্ধ হিসেবে দেখা হচ্ছে। এ কথা মাথায় রেখেই দু’পক্ষ আলেপ্পোয় ক্রমাগত শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে। সিরীয় সেনাবাহিনীর এক সূত্র জানিয়েছে, আলেপ্পোর চারদিক ঘিরে কমপক্ষে ২০ হাজার সেনা অবস্থান নিয়েছে। অন্যদিকে এক বিদ্রোহী কমান্ডার জানিয়েছেন, তারা একটি ‘ব্যাপক হামলা’ মোকাবেলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। রাজধানী দামেস্ক থেকে সেনাবাহিনীর সূত্রগুলো জানিয়েছে, আলেপ্পোর শেষ একটি শক্ত ঘাঁটি থেকে বিদ্রোহীদের হটিয়ে দিয়েছে তারা। বিদ্রোহীরা বলছে, তারা কৌশলগত পশ্চাদপসারণ করেছে। সিরীয় সরকারের এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা বলেছেন, ‘আলেপ্পোয় লড়াই এখনও শুরুই হয়নি। যা চলছে তা কেবল লড়াইয়ের মহড়া। আসল লড়াই শিগগির শুরু হবে।’
মানবাধিকার কর্মীরা জানিয়েছেন, আলোপ্পোয় বিদ্রোহীরা তাদের দখলকৃত এলাকার সীমানা বাড়াতে প্রাণপণ চেষ্টা করছে। তারা চাইছে সালাহেদ্দিন থেকে আরও অগ্রসর হতে। একটি টেলিভিশন ও রেডিও সংলগ্ন এলাকা তারা কব্জায় নিতে চাইছে। তবে সরকারি বাহিনীর তীব্র বাধার মুখে প্রতিবারই তারা ব্যর্থ হচ্ছে। সিরীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, সম্প্রচারে বিঘ্ন সৃষ্টিকারী প্রচুরসংখ্যক সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। বিদ্রোহীদের মতে, ১৭ মাস ধরে চলা আসাদবিরোধী সংঘর্ষে ২০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। যাদের মধ্যে বেশিরভাগই বেসামরিক নাগরিক। এদিকে আলেপ্পোয় তীব্র লড়াই চলাকালে শনিবার দামেস্কের একটি শিয়া তীর্থকেন্দ্রের প্রাঙ্গণে একটি বাস থেকে অন্তত ৪৮ জন ইরানি তীর্থযাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছে। অপহরণের জন্য সশস্ত্র গোষ্ঠীকে দায়ী করেছে সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ও ইরানি কূটনীতিকরা। বিদ্রোহীরা বলছে, বন্দিরা ইরানের রেভলিউশনারি গার্ড বাহিনীর সদস্য। ফ্রি সিরিয়ান আর্মি বলছে, এরা বিশেষ মিশন নিয়ে সিরিয়ায় প্রবেশ করেছিল।
সিরিয়া নিয়ে হিলারির বৈঠক তুরস্কে :১১ আগস্ট তুরস্কে সিরিয়া বিষয়ে বৈঠকে বসছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। সেখানে তিনি তুর্কি সরকারের সঙ্গে বৈঠক করবেন। রোববার এ তথ্য জানান মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র ভিক্টোরিয়া ন্যুল্যান্ড।
রাশিয়ার সহায়তা চাইল সিরিয়া :রাশিয়ার কাছে অর্থ ঋণ ও তেল সরবরাহের আবেদন জানিয়েছে সিরিয়া। মস্কো সফররত সিরীয় ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী কাদির জামিলের নেতৃত্বাধীন একটি প্রতিনিধি দল এ আবেদন জানিয়েছে। শুক্রবার মস্কোয় জামিল সাংবাদিকদের জানান, সিরিয়াকে অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে রাশিয়া।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট