Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নৌ দুর্ঘটনার দায় মুক্তি পাচ্ছেন মালিকরা

নৌ দুর্ঘটনা থেকে নৌযান মালিকদের দায়মুক্ত করতে বাংলাদেশ ইনল্যান্ড শিপিং অর্ডিনেন্স (আইএসও), ১৯৭৮ এর ৩৭(৫), ৫১(আই), ৫২(২), ৬৭(এ), ৭০(২) ধারা সংশোধন করতে যাচ্ছে সরকার। সমুদ্র পরিবহন অধিদফতর ২০১১ সালের ১৭ নভেম্বর নৌযান মালিকদের জরিমানা সংক্রান্ত কিছু সংশোধনীতে অর্থ মন্ত্রনালয়ের মতাতম চেয়ে চিঠি দেয়। পক্ষান্তরে অর্থ মন্ত্রনালয় থেকে গত ৪ এপ্রিল নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ে মতামত পাঠায়। এতে বেশকিছু বিষয়ে দ্বিমত করেছে অর্থ মন্ত্রনালয়।

আইএসও ১৯৭৮ আইনের ৫২ (২) ক্ষতিপূরণের বিষয়টি বিবেচনা করে ২০০৫ সালে ৫ লাখ টাকা করা হলেও নতুন সংশোধনিতে জরিমানা কমিয়ে মাত্র ২ লাখ টাকা করা হয়েছে। ৬৭ (এ) ধারায়  ২০০৫ সালের সংশোধনি আইনে নৌযানে মালামাল বোঝাইয়ের সময়ে মালিক বা তার প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকলে তাকে দায়ী করার বিষয়টি পরিবর্তন করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার অনুসন্ধানে ওভারলোডিংয়ের সময়ে মালিক বা তার প্রতিনিধির উপস্থিতি প্রমাণ হলেই মালিক পক্ষকে দায়ী করা যাবে। অন্যথায় নয়। ৭০(২) ধারায় নৌযানকে উপযুক্ত বা ফিট রাখার দায়িত্ব  মালিকের এ জন্য নৌযানের মেশিনারিজ ঠিক রাখা ও নাবিক  নিয়োগ দেয়া মালিকের দায়িত্ব। এ ধারায় অর্থ দন্ড এক লাখ টাকা করা হচ্ছে। ৫১(আই) অনুযায়ী নৌ দুর্ঘটনা তদন্ত প্রতিবেদনে দুর্ঘটনার জন্য মালিককে দায়ী করা হয় তাহলেই আদালত মালিককে শাস্তি দেবেন বলে সংশোধন চাওয়া হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রনালয়ের মতামতে  বলা হয়েছে- ৩৭(৫) ধারায় জাহাজের আকার অনুযায়ী নাবিক নিয়োগ করা না গেলে বা পাওয়া না গেলে মহাপরিচালক নিম্ন যোগ্যতাসম্পন্ন  নাবিককে ডিসপেনশেশন সনদ দেবে যা অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাঝে পরিষ্কার নয়, এটি ৯০ দিনের জন্য রাখা হবে তাও পরিষ্কার করা প্রয়োজন বলে মত দিয়েছে। ৫২ (২) অনুযায়ী এখানে ক্ষতিপূরণের পরিমাণ ৫ লাখ থেকে না কমিয়ে বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। ৬৭ (এ) ধারায়  ওভারলোডিং সময়ে মালিক বা তার প্রতিনিধি উপস্থিত থাকলেই যথেষ্ট। এক্ষেত্রে অনুসন্ধনের প্রয়োজন নাই। এতে বিচার কাজ বিলম্বিত হবে বলে মতামত দিয়েছে।

সমুদ্র পরিবহন অধিদফতরের সহাপরিচালক কমডোর জোবায়ের আহমদ এনডিসি বলেন, আইএসও ১৯৭৮ আইনের কিছুধারা সংশোধনের প্রয়োজন হয়েছে। এগুলোর মাধ্যমে মালিকদের দায়মুক্ত করা নয়, তাদের দায় দায়িত্ব আরও স্পষ্ট করা হয়েছে। এটি এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। অর্থমন্ত্রনালয়ের মতামত নিয়ে তা আইন মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হবে ভেটিংওয়র জন্য। তারপরেই সংযুক্ত করা হবে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট