Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

নুহাশ পল্লীতেই হুমায়ূনের অন্তিম শয্যা

নিজের হাতে গড়া প্রিয় নুহাশ পল্লীতেই অন্তিম শয্যা হচ্ছে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের। সোমবার দিবাগত রাত সোয় দুইটায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন  হুমায়ূনের ছোটভাই ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। আজ বাদ জোহর নুহাশ পল্লীতে দাফন করা হবে হুমায়ূন আহমেদকে। সকাল ৯টায় বারডেম হাসপাতালের হিমঘর থেকে তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে।
জাফর ইকবাল সাংবাদিকদের জানান, হুমায়ূন আহমেদের সন্তানরা চাচ্ছিলো তাদের বাবার দাফন মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে হোক। কারণ সেখানে সবাই সহজে যেতে পারবে। কিন্তু হুমায়ূনের দ্বিতীয় স্ত্রী শাওনকে রাজি করানো যায়নি। আবার সন্তানরা চাচ্ছে না যে, তাদের বাবার লাশ বারডেমের হিমঘরে পড়ে থাকুক। এ কারণেই তারা নুহাশ পল্লীতে দাফনের বিষয়টি মেনে নিয়েছে। রাতে দিন দফা বৈঠক ও সমঝোতা চেষ্টার পর পরিবারের সদস্যরা শেষ সিদ্ধান্তে পৌঁছান।
সর্বশেষ রাতে হুমায়ূন আহমেদের তিন সন্তান নোভা, শিলা ও নুহাশের সঙ্গে স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানকের বাসায় সোয়া এক ঘণ্টা ধরে বৈঠক করে এ কথা জানান জাফর ইকবাল। এর আগে নানক বৈঠক করেন হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওনের সঙ্গে। হুমায়ূনের ধানমন্ডির বাসভবন দখিন হাওয়ায় ওই বৈঠক চলে আড়াই ঘণ্টা।
এর আগে রাত ১০টায় প্রতিমন্ত্রী কথা বলেন হুমায়ূনের তিন সন্তান নোভা, শিলা ও নুহাশের সঙ্গে। পরে শাওনের সঙ্গে কথা বলে আবার তিন ভাইবোনের সঙ্গে আলোচনায় বসেন। নানক রাত ১টার দিকে দখিন হাওয়া থেকে শাওনের বক্তব্য নিয়ে সংসদভবন এলাকায় তার নিজ বাসভবনে যান। সেখানে আবারও বৈঠক করেন হুমায়ূন আহমেদের তিন সন্তান নোভা, শিলা ও নুহাশ এর সঙ্গে। এই বৈঠকের পরই জাফর ইকবাল সিদ্ধান্তের কথা জানান।
হুমায়ূন আহমেদের দাফন নিয়ে পারিবারিক সমঝোতা বৈঠকে স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট