Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

রাবিতে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ : গুলিবিদ্ধ রানা মারা গেছেন

 রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সোহেল রানা মারা গেছেন।রবিবার রাত ১২টার দিকে ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) রবিবার মধ্যরাতে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, গুলি বিনিময় ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় গুলিবিদ্ধ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সোহেল রানা গুলিবিদ্ধ হলে রাতেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

এদিকে ছাত্রলীগ কর্মীদের সংঘর্ষের পর মাদার বখশ হল ও সোহরাওয়ার্দী হলে সোমবার ভোর পর্যন্ত তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। তবে কোনো অস্ত্র উদ্ধার করতে পারেনি।

জানা যায়, রাত ১২টার দিকে মাদার বখশ হলের সামনে সাধারণ সম্পাদক আবু হোসেন দিপু সমর্থিত কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সভাপতি আহম্মেদ আলীকে নিয়ে কটূক্তি করলে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। পরে আধিপত্য বিস্তারের জন্য মাদার বখশ এবং সোহরাওয়ার্দী হলের দুগ্রুপের নেতাকর্মীরা লাঠি ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে ক্যাম্পাসে অবস্থান নেন। এ সময় তাদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ায় উভয়পক্ষের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়। কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে। সংঘর্ষে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী সোহেল রানা গুলিবিদ্ধ হন।

গুলিবিদ্ধ সোহেলকে প্রথমে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। পরে রানাকে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে মারা যান।

এদিকে সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাত ১টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার জন্য মাদার বখশ ও সোহরাওয়ার্দী হলে ভোর পর্যন্ত তল্লাশি চালানো হয়। তবে কোনো অস্ত্র উদ্ধার বা কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট