Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

গোলকন্যা সাবিনার আবারও ৯ গোল

কী বিশেষণে বিশেষায়িত করা যায় তাকে? গোলমেকার, গোলমেশিন নাকি গোলকন্যা! মনে হয় গোলকন্যা উপাধিটিই সবচেয়ে ভালো মানাবে তাকে। হ্যাঁ, তিনি আর কেউ নন, তিনি হলেন সাতক্ষীরার নারী ফুটবলার সাবিনা খাতুন। কেএফসি জাতীয় মহিলা সুপার লিগে এখন পর্যন্ত যিনি ৩টি ম্যাচে ৩০টি গোল করেছেন।

সুপার লিগের প্রথম রাউন্ডের চতুর্থ দিনে শুক্রবার সাতক্ষীরা জেলা দল ১৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে ঝিনাইদহ জেলা দলকে। ১৩ গোলের মধ্যে ৯টিই করেন সাবিনা। বাকি ৪টি গোলের মধ্যে ২টি করে গোল করেন রুকশানারা ও সুরাইয়া সুলতানা।

বিপাশার হ্যাটট্রিকে ৬-০ গোলে নড়াইল জেলা দল কুষ্টিয়া জেলা দলকে পরাজিত করে। বিপাশার ৩ গোল ছাড়াও রুনি আকতার ২টি এবং পদ্মাবতী ১টি গোল করেন।

রাঙ্গামাটি জেলা দল ৫-০ ব্যবধানে লক্ষীপুর জেলা দলকে পরাজিত করে। রাঙ্গামাটির পক্ষে সত্য মারমা ২টি, নদী চাকমা, শিবলিকা মারমা ও ত্রুবাই মারমা ১টি করে গোল করেন। অন্যদিকে মিলি মারমার একমাত্র গোলে ১-০ ব্যবধানে চট্টগ্রাম জেলা দল খাগড়াছড়ি জেলা দলকে পরাজিত করে।

অন্য ম্যাচে জয়পুরহাট জেলা দল ৩-০ ব্যবধানে নওগাঁ জেলা দলকে পরাজিত করে। জয়পুরহাটের পক্ষে জোড়া গোল করেন লতা। বাকি গোলটি আসে সোনারাণীর কাছ থেকে। রুপা ও বিলকিসের হ্যাটট্রিকে যশোর জেলা দল ৮-১ ব্যবধানে বগুড়া জেলা দলকে পরাজিত করে। রুপা ৪ গোল, বিলকিস ৩ গোল এবং হেনা ১টি গোল করেন।

মনসা ও মুনমুনের জোড়া গোলে ঠাকুরগাঁও জেলা দল কুড়িগ্রাম জেলা দলকে ৪-০ ব্যবধানে পরাজিত করে। এছাড়া ভাবনার হ্যাটট্রিকে রংপুর জেলা দল ৪-১ ব্যবধানে নীলফামারি জেলা দলকে পরাজিত করে। রংপুরের পক্ষে বাকি গোলটি করেন তিতলি। নীলফামারির শাহনাজ একমাত্র গোলটি পরিশোধ করেন।

টাঙ্গাইল জেলা দল ৩-০ ব্যবধানে খুলনা জেলা দলকে পরাজিত করে। টাঙ্গাইলের পক্ষে মুক্তা ২টি এবং সোমা ১টি গোল করেন। ফরিদপুর ও বঙ্গবন্ধু কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মংসিংহের মধ্যকার নবম ও শেষ ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট