Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ডিসিসি’র দক্ষিণে হোল্ডিং ট্যাক্স, উত্তরে যান চলাচলের ওপর কর বাড়ছে

 দীর্ঘ ২২ বছর পর রাজধানীর হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ছে। সদ্য ঘোষিত বাজেটে ১০ ভাগ বর্ধিত ট্যাক্স আরোপ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। অন্যদিকে রাজধানীতে যান চলাচলের ওপর কর আরোপ করেছে উত্তর সিটি করপোরেশন। বৃহস্পতিবার দুই সিটি করপোরেশন থেকে ২০১২-২০১৩ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে দুই সিটি করপোরেশনেই সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প, সরকারি ও বেসরকারি অংশীদারিত্ব (পিপিপি) ভিত্তিক মোট ৩ হাজার ৭৪৭ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ১ হাজার ৭৮১ কোটি ৬৮ লাখ টাকা এবং উত্তর সিটি করপোরেশনে ১ হাজার ৯শ’ ৬৬ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়। মাত্রাতিরিক্ত বাড়ি ভাড়ার বিরুদ্ধে যখন রাজধানীতে মিছিল সমাবেশ করছে নগরবাসী, তখন ১০ ভাগ হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর ঘোষণা নাগরিক জীবনে বিরূপ প্রভাব ফেলবে- এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন অনেকেই। তবে জনমত উপেক্ষা করে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়ার কারণ প্রসঙ্গে প্রশাসক মো. জিল্লার রহমান বলেন, মন্ত্রণালয় তাকে যে আইনের ভিত্তিতে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে, সে আইনেই হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানো হয়েছে। অন্যদিকে ঢাকার বাইরে থেকে আসা রাজধানীতে চলাচলকারী যানবাহনের ওপর কর আরোপের বিষয়ে উত্তরের প্রশাসক মো. শাহজাহান মোল্লা বলেন, সরকারের কাছে উন্নয়ন খাতে ১০০ কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে। সরকার যদি তা না দেয় তাহলে যানবাহনের ওপর ডিসিসি কর আরোপ করবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই সরকারের সিদ্ধান্ত ও মতামত রয়েছে দাবি করেন তিনি।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১ হাজার ৭৮১ দশমিক ৬৮ কোটি টাকার বাজেট
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগর ভবনে ২০১২-১৩ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করেন ডিসিসি দক্ষিণের প্রশাসক মো. জিল্লার রহমান। এ সময় ডিসিসি দক্ষিণের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানুল ইসলাম চৌধুরীসহ অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বাজেটে আয়  ঘোষণা করা হয়েছে- রাজস্ব খাতে ৪৫৯ দশমিক ১৮ কোটি টাকা। অন্যান্য খাত থেকে ৫৬ দশমিক ৫০ কোটি টাকা, সরকারি অনুদান (থোক) ৩৭ কোটি টাকা, সরকারি বিশেষ অনুদান ২৫ কোটি টাকা, সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প/সরকারি ও বেসরকারি অংশীদারিত্ব (পিপিপি) ভিত্তিক প্রকল্প ১১শ’ ৮৯ কোটি টাকা। বাজেটে ব্যয়ের খাত দেখানো হয়েছে- রাজস্ব খাতে ২৪২ দশমিক ৭০ কোটি টাকা, অন্যান্য খাতে ৭ দশমিক ৪৫ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ১ হাজার ৫১৬ দশমিক ৫৩ কোটি টাকা। তবে হোল্ডিং ট্যাক্স শতকরা ১০ ভাগ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানুল ইসলাম চৌধুরী।
তিনি বলেন, ঢাকা শহরে প্রতিনিয়ত জনসংখ্যার চাপ বাড়ছে। এখন বিদেশী নাগরিকরাও ঢাকায় বসবাস করে। তাই নগরায়নের তুলনা হয় বিশ্বায়নের সঙ্গে। ঢাকা সিটি করপোরেশন ১৪৮ বছরের পুরনো প্রতিষ্ঠান, যা নগরবাসীকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। পরে এটিকে দু’ভাগ করা হয়। এবারের বাজেটে আমরা রাজস্ব ব্যবস্থা আধুনিকীকরণ, কমিউনিটি সেন্টারের আধুনিক ব্যবস্থাপনা, ই-টেন্ডারিং ব্যবস্থা, ডিজিটালাইজড মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কর্মসূচির আওতা আরও বাড়ানো হবে ঘোষণা করেন তিনি। এদিকে বনানী কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রস্তাবিত বাজেটে ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে নিজস্ব উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৮২ দশমিক ৭৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে হোল্ডিং ট্যাক্স বাবদ ১৬ কোটি, বিজ্ঞাপন ফি বাবদ ১০ কোটি, বাস ও ট্রাক টার্মিনাল থেকে ৬ কোটি, পশুরহাট ইজারা বাবদ ১১ দশমিক ৫ কোটি, রাস্তা খনন ফি বাবদ ৪০ কোটি, যন্ত্রপাতি ভাড়া বাবদ ২ কোটি, সম্পত্তি হস্তান্তর খাতে ৮০ কোটি, ক্ষতিপূরণ বাবদ ৫০ লাখ, বিদ্যুৎ বিল আদায় খাত থেকে ৩ দশমিক ২৫ কোটি ও অন্যান্য আয়ের খাত থেকে ১ কোটি টাকা আয় আসবে। ডিসিসি উত্তরের প্রশাসক মো. শাহজাহান আলী মোল্লা বলেন, ‘সরকারি উন্নয়ন অনুদান (বিশেষ অনুদানসহ) ২০ কোটি টাকা পাওয়ার আশা করছি। সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে প্রায় ৫০৩ কোটি টাকা পাওয়া যাবে। এছাড়াও, সরকারি ও বেসরকারি অংশীদারিত্ব (পিপিপি) প্রকল্প থেকে ৯৪০ কোটি টাকার প্রকল্প সাহায্য হিসেবে পাওয়ার আশা করছি। ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তরের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট