Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

দেশে ১,২২,৪৩৭ ঋণখেলাপি

 দেশে বর্তমানে ঋণখেলাপির সংখ্যা এক লাখ ২২ হাজার ৪৩৭। মোট ৪৭টি ব্যাংকের এই ঋণখেলাপিদের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক ঋণখেলাপি রয়েছে ব্র্যাক ব্যাংকে। ওই ব্যাংকে ঋণখেলাপির সংখ্যা ২৯ হাজার ২০৩। আর দেশে খেলাপি ঋণ বিষয়ে মোট মামলা করা হয়েছে ৩২ হাজার ৪৪০টি। গতকাল সংসদের টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তরে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, চলতি বছরের ৩১শে মার্চ পর্যন্ত দেশের ৪৭টি ব্যাংকে মোট এক লাখ ২২ হাজার ৪৩৭ জন ঋণখেলাপি রয়েছেন। ব্র্যাক ব্যাংকের পরের অবস্থানে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক। তাদের ঋণখেলাপির সংখ্যা ২০ হাজার ৫। আর সবচেয়ে কম ঋণখেলাপির সংখ্যা সিটি ব্যাংক এনএ’র। তাদের ঋণখেলাপির সংখ্যা মাত্র ৩। ৪৭টি ব্যাংকের ঋণখেলাপিদের তালিকাও তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী। এতে দেখা যায়- অগ্রণী ব্যাংক ৭৯২৩, জনতা ব্যাংক ৪৯৪১, রূপালী ব্যাংক ৩৯১৪, সোনালী ব্যাংক ৭৭৮১, ব্যাংক আল ফালাহ ৫, এইচএসবিসি ২৩০, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ৮৪৬১, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া ১৭, হাবিব ব্যাংক ৭, সিটি ব্যাংক এনএ ৩, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন ২৬, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান ৩১, ওরি ব্যাংক ৫, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ৭০৭৪, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক ২০০০৫, বেসিক ব্যাংক ২৩৩, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক ৩৮২, এবি ব্যাংক ৯৮৪, ইসলামী ব্যাংক ৮৪৫, ন্যাশনাল ব্যাংক ৯৩০, দি সিটি ব্যাংক ২৫৫৬, আইএফআইসি ব্যাংক ১০৭৮,  ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক ২৪১৮, পূবালী ব্যাংক ৪৪১৪, উত্তরা ব্যাংক ২০৬১, আইসিবি ইসলামী ব্যাংক ৭৬৭, ইস্টার্ন ব্যাংক ২২৩০, এনসিসি ব্যাংক ৭৯৩, প্রাইম ব্যাংক ২৬৭৯, সাউথইস্ট ব্যাংক ৫০৫, ঢাকাব্যাংক ২৮৬১, আল-আরাফাহ্‌ ইসলামী ব্যাংক ১৮৯, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক ৩৩৯, ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক ৩৩২, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ১০৭৫, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ৫৬, ওয়ান ব্যাংক ৯০২, এক্সিম ব্যাংক ৯৬, বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক ৬৭৫, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ১৬৭, প্রিমিয়ার ব্যাংক ১৩৬৮, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক ৯৯, ব্যাংক এশিয়া ১২২০, ট্রাস্ট ব্যাংক ৩২৫, শাহ্‌জালাল ইসলামী ব্যাংক ১২২, যমুনা ব্যাংক ১১০, ব্র্যাক ব্যাংক ২০ হাজার ২০৩ জন। অর্থমন্ত্রী জানান, গত ১৪ই জুন পর্যন্ত বাংলাদেশ ফান্ড পুঁজিবাজারে ১৪৭২ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছেন। মন্ত্রী আরও জানান, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরিয়ে আনতে এবং বাজার স্থিতিশীল করতে বাংলাদেশ ফান্ড গঠন করা হয়েছে। আইসিবি, সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, সাধারণ বীমা করপোরেশন এবং জীবন বীমা করপোরেশন এই ফান্ডের উদ্যোক্তা। এই ফান্ডের ইউনিট বিক্রয়ের কাজ ২০১১ সালের ১০ই অক্টোবর থেকে শুরু হয়।
ইউনিপেটুইউ-এর লেনদেন সন্দেহজনক: এদিকে জাতীয় পার্টির একেএম মাঈদুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী কয়েকটি তফসিলি ব্যাংকে ইউনিপেটুইউ-র লেনদেন সন্দেহজনক। এই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ইউনিপেটুইউ-র মালিক ও তাদের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট হিসাবগুলো মানিলন্ডারিং আইনের আওতায় স্থগিত করা হয়েছে। এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিএফআইইউ-এর প্রতিবেদনসহ অন্যান্য দলিল দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)-এ পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, বিএফআইইউ-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী লেনদেন সন্দেহজনক হওয়ায় ডেসটিনির বিভিন্ন ব্যাংক হিসাবও স্থগিত করা হয়েছে। যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এই প্রতিবেদনটিও দুদকে পাঠানো হবে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট