Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

টি-২০ ট্রায়াঙ্গুলার সিরিজে মুশফিকদের বিদায়

হারারে, ২৩ জুন: জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠানরত টি-২০ ট্রায়াঙ্গুলার সিরিজ থেকে বিদায় নিয়েছে মুশফিকুর রহিমের বাংলাদেশ। চার খেলার প্রথম দুটিতে হারের পর শেষের দুটি ম্যাচে জিতে ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রেখেছিল বাংলাদেশ। শনিবার ট্রায়াঙ্গুলার সিরিজের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা ছয় উইকেটে হারায় জিম্বাবুয়েকে। ফলে তিন দলই দুটি করে ম্যাচ জিতে সমান ৮ পয়েন্ট করে সংগ্রহ করে। নিট রান রেটে এগিয়ে থাকায় ফাইনালে ওঠে দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ে। বিদায় নেয় মুশফিকুর রহিমের বাংলাদেশ।

শনিবার হারারেতে জিম্বাবুয়ে ও দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচের ফলাফলের ওপর নির্ভর করছিল বাংলাদেশ ফাইনালে খেলবে কিনা। টসে জিতে জিম্বাবুয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে করে ১২৪ রান ছয় উইকেট হারিয়ে। জিম্বাবুয়ে কম রান সংগ্রহ করায় বাংলাদেশের ফাইনালে খেলার আশা অনেকটা থিতু হয়ে যায়। কারণ এই কম স্কোরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জেতা সম্ভব নয়। যদি জিম্বাবুয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারতো তাহলে বাংলাদেশ ফাইনালে উন্নীত হতো। তারপরও জিম্বাবুয়ের রান কম হওয়াতে ফাইনালে যাওয়ার আরেকটি সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে। তাহলো যদি দক্ষিণ আফ্রিকা ১৫ ওভার বা তারচেয়ে কম ওভার খেলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয়ী হতে পারতো। সেক্ষেত্রেও বাংলাদেশ ফাইনাল খেলতো। বিদায় নিতে হতো স্বাগতিক জিম্বাবুয়েকে।

১৫ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা সংগ্রহ করে ১১০ রান তিন উইকেট হারিয়ে। জেতার জন্য তখনো তাদের প্রয়োজন ছিলো আরো ১৫ রানের। দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৫ ওভারের মধ্যে জিততে না দেয়ায় ফাইনালে ওঠে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে।

১২৫ রানে জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকা ১ রান স্কোরবোর্ডে জমা করতে অধিনায়ক হাশিম আমলা কোনো রান না করেই আউট হন। অপর ওপেনার রিচার্ড লেভি ছিলেন অত্যন্ত মারমুখী। ৩০ বলে চারটি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে ৫৪ রান করে দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হয়ে বিদায় নেন।

ফাফ ডু প্লেসিস ১৪ এবং অনটং ২৪ রান করে আউট হলেও বিহারডিয়েন অপরাজিত ১৯ এবং মোরকেল অপ: ৬ রান করলে ১৭.৪ ওভারে চার উইকেটে ১৩০ রান করলে ৬ উইকেটে জিতে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

জিম্বাবুয়ের বোলারদের মধ্যে এম পফু, জার্ভিস এবং ওয়েলার একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে আজ টস জিতে জিম্বাবুয়ে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু টপ অর্ডারে মাসাকাদজা ছাড়া পরের দুই জন কিছুই করতে পারেনি। সিবান্দা ৯ রানে, টেইলর ১ রানে আর মাসাকাদজা ৩৭ রানে সাঁজঘরে ফেরত যান। দলীয় স্কোর ৫৪। মাতসিকিনারী যদি ২২ রান আর শেষদিকে ক্রেমার ৩৬ রান যোগ না করতেন তাহলে জিম্বাবুয়ে স্কোর ১২৪ রানের চেয়ে আরও অনেক কম হতে পারত। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দক্সিণ আফ্রিকা ১২৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৫ ওভারে ১ উইকেটে সংগ্রহ করেছে ৫৪ রান। জয়ের জন্য দরকার ৭১ রান।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট