Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

বেনাপোল বন্দরে ধর্মঘট- একদিনের রপ্তানি ক্ষতি ভারতের ১৫ কোটি বাংলাদেশের ৫০ হাজার রুপি

একদিন বেনাপোল বন্দর বন্ধ থাকলে ভারতের রপ্তানি ক্ষতি ১৫ কোটি রুপি। আর বাংলাদেশের রপ্তানি ক্ষতি মাত্র ৫০ হাজার রুপি। এই হিসাবটা পরীক্ষিত হলো বেনাপোলে ডাকা শ্রমিক ধর্মঘটে। এই শ্রমিকরা সবাই ভারত-বাংলাদেশ আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত। গতকাল দ্য হিন্দু’র এক খবরে বলা হয়, শ্রমিক ধর্মঘটের কারণে ভারতের ৬০ কোটি রুপির রপ্তানি বাণিজ্য ক্ষতিগ্রস্ত হলো। মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে ৪ দিনের এই ধর্মঘট ডেকেছিল বেনাপোল স্থলবন্দরের বাংলাদেশী শ্রমিকরা। টনপ্রতি তাদের মজুরি পাওয়ার কথা ১৮ টাকা ৪০ পয়সা। কিন্তু তাদের দেয়া হয় ১২ টাকা।
গত ৬ই জুন ওই ধর্মঘট শেষ হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে পেট্রাপোল স্থলবন্দরের বিপরীতে বেনাপোল স্থলবন্দর প্রতিষ্ঠিত। শতকরা ৬০ ভাগ ভারতীয় রপ্তানি সম্পন্ন শেষ হয় এই বন্দরের সাহায্যে। দ্য হিন্দু বলেছে, ধর্মঘটের কারণে কাঁচা তুলা এবং পচনশীল দ্রব্য বহনকারী ট্রাকগুলো চলাচল করতে না পারায় সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়। চাল ও পিয়াজের চলাচলও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। গমবাহী ট্রাকগুলো অন্য গন্তব্য বেছে নিতে হয়।
পেট্রাপোলের সহকারী কমিশনার (রপ্তানি) প্রদানশীল জুমলি নিশ্চিত করেছেন, ওই ধর্মঘটের কারণে রপ্তানির ক্ষতি হয়েছে ৬০ কোটি রুপি। কিন্তু আমদানি ক্ষতি হয়েছে খুবই কম। মাত্র দুই কোটি রুপি। জুমলি’র কথায়, কাঁচা তুলা, খাদ্যশস্য, প্রকৌশলগত সরঞ্জাম চলাচলে বিরাট সমস্যা সৃষ্টি হয়।
ভারতীয় পরিবহন সূত্রগুলো বলেছে, এই সময়ে ১২ হাজার ট্রাক আটকা পড়েছিল। ইআরটি শিপিং এবং ওয়ারহাউসিং প্রাইভেট লিমিটেডের প্রমোদ নাহাতা বলেন, চারদিনে প্রায় ১২ হাজার ট্রাক আটকা পড়ে ভারতের পাশে। প্রায় ৫০০ ট্রাক আটকা পড়ে বাংলাদেশের দিকে। এ সময়ে আন্তঃসীমান্ত বাণিজ্যে পুরোপুরি অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছিল।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট