Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সরকারের বিরুদ্ধে না লিখলে অনেকের পেটের ভাত হজম হয় না: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ২ জুন: প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা দেশের গণমাধ্যমের সমালোচনা করে বলেছেন, “মিডিয়া এখন স্বাধীন। প্রতিদিন সরকারের বিরুদ্ধে না লিখলে অনেকের পেটের ভাত হজম হয় না।”

গণভবনে শনিবার সকালে কুড়িগ্রাম জেলার তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রারম্ভিক বক্তব্যে শেখ হাসিনা একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সত্য না মিথ্যা তা যাচাই করার দরকার নেই। তাদের লিখতেই হবে। আমি প্রতিদিন পত্রিকাগুলো দেখি। কিছু দাগ দিয়ে রাখি। সম্পূর্ণ ভুয়া নিউজ।”

‘দেশের অবস্থা ভালো না’ বলে যারা সরকারের সমালোচনা করছেন তাদের পাল্টা সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, “যারা ভালো দেখেন না- তারা চান না মানুষ একটু ভালো থাকুক, জনগণ স্বস্তিতে থাকুক। আমরা যখন গরিব মানুষকে দিচ্ছি, তখন তাদের যত হা-হুতাশ। গ্রামের মানুষের কোনো হা-হুতাশ নেই।”

তিনি টেলিভিশনের টক শো প্রসঙ্গে বলেন, “টক শোতে এক চিত্র, আর গ্রামে গেলে আরেক চিত্র।”

বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকারের সময়ে ১৪ নিহত এবং এক হাজার ৪০০ সাংবাদিক আহত হয়েছিলেন বলে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “অনেক সাংবাদিককে চিরতরে পঙ্গু করে দেয়া হয়েছে। অনেকে মামলা করতে পারেননি। আবার অনেকে নিজ এলাকাতেও থাকতে পারেননি। তখন পত্রপত্রিকা আর ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সে খবর আসেনি।”

শেখ হাসিনা বলেন, “অনেকে আছেন, জনগণ ভালো থাকলে তাদের ভালো লাগে না। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা তাদের পছন্দ নয়। সব সরকারের কাছ থেকে সুবিধা নিতে তারা অভ্যস্থ।”

বাংলাদেশকে একটি সম্ভাবনাময় এবং মডেল দেশ হিসেবে আখ্যায়িত করে শেখ হাসিনা তার সরকারের অর্জনগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরতে তৃণমূলের নেতাদের প্রতি আহবান জানান।

তৃণমূলের নেতাদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, “অনেক কথা শুনবেন। কিন্তু, নিজের ওপর আত্মবিশ্বাস রাখবেন।”

শেখ হাসিনা বলেন, “২০২১ সালের মধ্যে মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে আমরা আমাদের সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করতে পারবো। এই বিশ্বাস আমার আছে। আমরা এটা পারবো।”

তিনি বলেন, “ষড়ন্ত্রের শিকার হয়েই আওয়ামী লীগ ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারেনি। আওয়ামী লীগ গরিবের জন্য কাজ করে- তা অনেকের পছন্দ নয়। আওয়ামী লীগ তেলা মাথায় তেল ঢালতে পছন্দ করে না।’’

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মহিউদ্দিন খান আলমগীর, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, সাধারণ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, উপ-দফতর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


One Response to সরকারের বিরুদ্ধে না লিখলে অনেকের পেটের ভাত হজম হয় না: প্রধানমন্ত্রী

  1. raisul

    June 3, 2012 at 1:34 pm

    সাংবাদিক মানেই পুণ্যবান এরকম ভাবার কোনো কারণ দেখি না, বহু সাংবাদিক আছে যারা ছিনতাইকারীদের চেয়েও ক্ষতিকর।হাবিজাবি ব্রেকিং নিউজ, ব্যক্তি বা গোষ্ঠির স্বার্থসিদ্ধির উদ্দেশ্যে মনগড়া রিপোর্ট করে করে সাংবাদিকরাই সমাজে সবচেয়ে বেশি অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। একমাত্র সাংবাদিক জাতির ভুল, দুর্বলতা, অপকর্ম নিয়ে কথা বলার কেউ নেই, নেই কোনো মাধ্যম। সমাজের উন্নয়নে, দেশের অগ্রগতিতে, উৎপাদনশীলতায় আমাদের সাংবাদিক, মিডিয়ার ভূমিকা কতটুকু? মানুষকে হেনস্থা করা, উত্তেজনা ছড়ানোই আমাদের সংবাদকর্মীদের প্রধান ব্রত। ক্রিমিনাল, ক্ষমতাবানদের সাথে বরং সাংবাদিকদের সুসম্পর্ক। সরকারের উচিত সাংবাদিকদের জীবনযাপন, আয়রোজগার ইত্যাদি বিষয়ে তথ্যানুসন্ধান করা।