Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

তত্ত্বাবধায়কের দাবি একটি ‘ডেড ইস্যু’: কামরুল

ঢাকা, ২৫ মে: আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, “তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি একটি ‘ডেড ইস্যু’। নির্বাচিত সরকারের বিকল্প অনির্বাচিত সরকার হতে পারে না। নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের নিয়েই অন্তবর্তিকালীন সরকার গঠন করা হবে।”

শুক্রবার রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমীর মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু আদর্শ মূল্যায়ন ও গবেষণা সংসদ‘র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. ওয়াজেদ মিয়া তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভার আয়োজন করে সংগঠনটি।

কামরুল বলেন, “বাংলাদেশে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে। প্রথম সারির নেতারা ভয়ে বোরকা পরিধান করেছে। এ ইতিহাস শুধু উপমহাদেশে নয়, বিশ্বের কোথাও নেই। বাংলাদেশের রাজনীতির নামে সন্ত্রাস চলে। মিথ্যাচার করা হয়। জনগণকে বিভ্রান্ত করা হয়।’’

বিচার বিভাগ প্রভাবিত করার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে কামরুল বলেন, ‘‘বিচার পক্ষে গেলে বলবেন ন্যায় বিচার পেয়েছি, আর বিপক্ষে গেলে বলবেন বিচার প্রভাবিত করা হয়েছে। তা ঠিক নয়, বিচার বিভাগ প্রভাবিত করার অভ্যাস বিএনপির আওয়ামী লীগের নয়।’’

বিরোধী দলকে সংসদে আসার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, “সন্ত্রাস নৈরাজ্যের পথ পরিহার করে সংসদে আসুন প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিয়ে কিভাবে অন্তবর্তিকালীন সরকার গঠন করতে পারি সে ব্যাপারে আলোচনা করি।”

কামরুল ইসলাম বলেন, “আন্দোলনের নামে সন্ত্রাস চালাবেন, নৈরাজ্য করবেন, মানুষ হত্যা করবেন তা সহ্য করা হবে না। নৈরাজ্য, সন্ত্রাস চালালে মোকাবেলায় আমরা হার্ডলাইনে যাবো। আন্দালনের নামে সন্ত্রাস করলে আবশ্যই মামলার জন্য প্রস্তুত থাকুন। জগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে সরকার যা যা করা দরকার তাই করবে। আর নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন করলে সরকার অবশ্যই সমর্থন করবে।”

ব্যারিস্টার রফিক-উল-হকের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “আমাদের সমাজের অনেক বয়োবৃদ্ধ, খ্যাতিমান ব্যক্তিরা নিজেদের কাজে কর্মে শ্রদ্ধা অর্জন করেছেন, তারা আমাদের শিরোমনি ও গুণিজন হয়ে থাকবেন। তা না করে মিথ্যাচার করছেন, আইনের অপব্যাখ্যা দিচ্ছেন। সাধারণ মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন।’’

আইন প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, “মামলার আইনজীবী হয়ে মামলা মোকাবেলা এক জিনিস আর রাজনীতিবিদদের মতো হয়ে কথা বলা আরেক জিনিস। কিন্তু যারা রাজনীতির নামে সন্ত্রাস চালাচ্ছেন তাদের পরোক্ষভাবে আশ্রয়, প্রশ্রয় ও ইন্ধন দিচ্ছেন।’’

সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সিদ্দিক হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও কৃষক লীগের সহ-সভাপতি শেখ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট