Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

মৃত্যুর পর বেঁচে উঠলেন তিনি!

আনুষ্ঠানিক মৃত ঘোষণার ২৫ মিনিট পর বেঁচে উঠে রেকর্ড গড়েছেন নিউজিল্যান্ডের গ্যাড নামের এক ব্যক্তি। সম্ভবত পর্বতশৃঙ্গে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর বেঁচে ওঠা প্রথম ব্যক্তি তিনি। ঘটনাটি ১৮ই ফেব্রুয়ারির। তবে বিলম্বিত এ খবর গতকাল প্রকাশ করেছে ভারতের একটি অনলাইন ট্যাবলয়েড দৈনিক। নাগুরোহ পর্বতশৃঙ্গের টোঙ্গারিরো ক্রসিং অঞ্চলে হাঁটছিলেন ৭০-এ পা রাখা গ্যাড। হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। ওই সময় তার সঙ্গে ছিলেন তার দুই বন্ধু। কিছুক্ষণ বিশ্রামের জন্য বিরতি নেয়ার সময় তার বন্ধু কলিন ডায়াবেটিসের সুগার পরীক্ষা করছিলেন। এমন সময় হঠাৎ তার মাথা ঘোরা ও বুকে ব্যথা শুরু হয় বলে জানান গ্যাড। তিনি বলেন, আমি বুঝে গেছি আর ফিরে যেতে পারবো না। তাই আমরা ১১১ নম্বরে জরুরি ফোন করি। তারপর উদ্ধার টিম গিয়ে হেলিকপ্টারে করে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় উদ্ধার দলের ডাক্তারসহ সবাই গ্যাডকে মৃত ঘোষণা করেন। উদ্ধার দলের একজন মোর বলেন, আমরা সেখানে ঘোরাফেরা করছিলাম। পর্বতশৃঙ্গের উপরে মেঘের অবস্থা ছিল খুবই হাল্কা। কিন্তু একজনের বুকের ব্যথা হলে সবকিছু দ্রুত করা হয়। তার ব্যথার অবস্থা খারাপ হতে থাকলে তাকে সাধারণ ওষুধ দেয়ার ব্যবস্থা করি আমরা। তিনি বলেন, তার অবস্থা দেখে আমরা কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়ি। তাকে ওষুধ দিই। সেবা করি। এতে তার নার্ভ কাজ শুরু করে। তিনি শ্বাস-প্রশ্বাস নেয়া শুরু করেন। আস্তে আস্তে কুয়াশার তীব্রতা বাড়তে থাকে। বরফাচ্ছাদিত হতে শুরু করে পর্বতশৃঙ্গ। তাই মোরসহ উদ্ধারকর্মীরা গ্যাডকে অপেক্ষা করা বিমানের কাছে নিয়ে যান। কিন্তু এ সময় আবারও হৃদযন্ত্রের ক্রিয়ায় সমস্যা দেখা দেয় গ্যাডের। এতে করে আরও ২০ মিনিট হৃদক্রিয়া বন্ধ থাকে তার। পরে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ওইকেটো হাসপাতালে নেয়া হয়। তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে মৃত ঘোষণা করা হয়। কিন্তু একবার ৫ ও একবার ২০ মিনিট পর দেখা যায় তার সমস্যা হয়নি। তিনি শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে শুরু করেন। ওইকেটো হাসপাতালে দেখা যায় তার হৃদক্রিয়ায় সামান্য ক্ষতি হয়েছে মাত্র। গ্যাড বলেন, ওই সমস্যা কেটে উঠতে তার মোট ২ মাস লেগেছে। গত সপ্তাহে সুস্থ হওয়ার পর নিউজিল্যান্ড স্টিল সিস্টেম বিশেষজ্ঞ গ্যাড ও তার স্ত্রী ম্যাক্সিন তার উদ্ধার দলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। গ্যাড বলেন, এটা ছিল একটা বিস্ময়কর ঘটনা। সবাই চেষ্টা করে আমাকে দ্বিতীয় জীবন দিয়েছেন। আমি সবার প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ। এদিকে উদ্ধার দলের মোর বলেন, ২৫ মিনিট গ্যাড মৃত ছিলেন এটা সত্য। এটা পর্বতারোহী হৃদরোগীদের মধ্যে আশার সঞ্চার করেছে। তবে এমন পুনর্জীবন লাভের ঘটনা আর শুনিনি আমি।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট