Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

মিরপুরে ভাড়াটিয়া হিসেবে উঠে বাড়ি দখল

ঢাকা, ৯ মে: রাজধানীর দারুসসালাম থানা এলাকায় ভাড়াটিয়া হিসেবে উঠে বাড়ি দখলের ঘটনা ঘটেছে। মালিকের দুই ছেলেকে একাধিকবার মারধর করে বাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়ে দিয়েছে ভাড়াটিয়াসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র। এ বিষয়ে দারুসসালাম থানা ও সিএমএম কোর্টে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

জানা যায়, দারুস সালাম থানার লালকুঠি এলাকার তৃতীয় কলোনীর ৭২/১৫/এ নম্বর ভবনে ২০০৫ সালে ভাড়াটিয়া হিসেবে ওঠেন আব্দুর রশীদ ও তার মেয়ে নারগিস আক্তার  (২৮) ও শিউলি আক্তারসহ (২৬) তাদের পরিবার। মেয়েদের সঙ্গে এলাকার বখাটের সখ্য গড়ে ওঠে এবং তারা নিয়মিত বাড়িতে আসা-যাওয়া শুরু করে। এলাকর লোকজন  ও স্থানীয় মসজিদ কমিটির লোকজন অসামাজিক কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য তাদের বলেন। এরই মধ্যে গত ২০১০ সালের এপ্রিলের পর থেকে ভাড়া দেয়া বন্ধ করে দেন তারা। ভাড়া চাইতে গেলে তারা নিজেদের বাড়ির মালিক দাবি করেন। তারা স্থানীয় সংসদ সদস্য আসলামুল হকের নাম ব্যবহার করে থানা পুলিশ ও স্থানীয় ভূমি অফিসকে ম্যানেজ করে লিজ নেয়ার কাগজ তৈরি করেন। বাড়ির মালিকের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন ও ইস্রাফিলের উপর হামলা চালায়।

 

সংসদ সদস্য আসলামুল হক বিষয়টি জানার পর ডিও লেটার দিয়ে মালিকানা সম্পত্তি অবৈধভাবে দেয়া লিজ বাতিলের জন্য সংশ্লিষ্টদের কাছে চিঠি পাঠান। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত করে লিজ বাতিল করা হয়। মীরপুর সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত এক সার্কুলারে এ লিজ বাতিল করা হয়।

 

এ ব্যাপারে বাড়ি দখলকারী নার্গিসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, গাবতলী এলাকার একটি কথিত মানবাধিকার সংগঠনের বিউটি (০১৯৪০৫৬৫১৮৪) নামের এক জনের ফোন নম্বর দিয়ে যোগাযোগ করতে বলেন। তাকে ফোন করে তার সংগঠনের নাম জানতে চাইলে তিনি তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করে বলেন, ‘‘দারুসসালাম থানার ওসির কাছে আমার নাম জিজ্ঞাস করলেই আমার পরিচয় পাবেন।’’ জমি দখলের ব্যাপারেও কোনো তথ্য জানাবেন না বলে জানান।

 

এ ব্যাপারে দারুস সালাম থানার ওসি আবদুল মালেকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই নামে কোনো মানবাধিকার নেত্রীকে তিনি চিনেন না বলে জানান।

 

এদিকে স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করেন ওই বাড়িটিতে স্থানীয় বখাটে ও মাস্তানরা আসাযাওয়া করে। মাদক সেবনসহ অন্যান্য অসামাজিক কার্যক্রমও চলে সেখানে। এদের মধ্যে বেশিরভাগ চিহ্নিত সন্ত্রাসী হওয়ায় ভয়ে প্রতিবাদ করতে পারেন না তারা।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট