Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

১লা ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু

স্টাফ রিপোর্টার: আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি  থেকে শুরু হচ্ছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। ২০১২ সালের এসএসসি, দাখিল সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৪ লাখ ২০ হাজার ৫৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। গতবারের চেয়ে এবার ১ লাখ ৫ হাজার ৫৫ জন পরীক্ষার্থী বেশি অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র রয়েছে ৭ লাখ ৩৫ হাজার ২২৯ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৮৪ হাজার ৮২৮ জন। গতকাল সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। নাহিদ জানান, এবার এসএসসি পরীক্ষায় ৮টি সাধারণ বোর্ডে অংশ নিচ্ছে ১৫ হাজার ৯৩৩টি প্রতিষ্ঠানের  ১০ লাখ ৫২ হাজার ৯৬৯ জন পরীক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র রয়েছে ৫ লাখ ২০ হাজার ১৫১ জন এবং ছাত্রী রয়েছে ৫ লাখ ৩২ হাজার ৮১৮ জন। মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ৯ হাজার ১৯৭টি প্রতিষ্ঠানের ২ লাখ ৭৫ হাজার ৯৩০ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র রয়েছে এক লাখ ৪৮ হাজার ৮৭৮ জন এবং ছাত্রী রয়েছে এক লাখ ২৭ হাজার ৫২ জন। কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের আওতায় এক হাজার ৭২৫টি প্রতিষ্ঠানের ৯১ হাজার ১৫৮ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র রয়েছে ৬৬ হাজার ২০০ জন এবং ছাত্রী রয়েছে ২৪ হাজার ৯৫৮ জন। শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ২০১২ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যেই ফল প্রকাশ করা হবে। আর শিক্ষা বোর্ডগুলোর নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোর তথ্য আদান প্রদান হবে অনলাইনে। ৮টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, দাখিল ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে ২ হাজার ৪৬৪টি কেন্দ্রে আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ঠা মার্চ পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের তত্ত্বীয় পরীক্ষা হবে। পথমবারের মতো এবার ৮টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে ছাত্রদের থেকে ছাত্রী সংখ্যা বেশি। এবার এসএসসিতে ১০ লাখ ৫২ হাজার ৯৬৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫ লাখ ৩২ হাজার ৮১৮ জন ছাত্রী এবং ৫ লাখ ২০ হাজার ১১৫ জন ছাত্র। এসএসসিতে ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীর সংখ্যা ১২ হাজার ৬৬৭ জন বেশি। গত বছর এ পরীক্ষায় ১৩ লাখ ১৫ হাজার দু’জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছিল। এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫৫ জন। এবার ২৬ হাজার ৮৫৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে। এছাড়া ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে জেদ্দা, রিয়াদ, আবুধাবী, দুবাই, দোহা, বাহরাইন ও ত্রিপোলি কেন্দ্রে একযোগে পরীক্ষা হবে। বিদেশের কেন্দ্রগুলোতে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২৭৪ জন। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার অতিরিক্ত সময় ১৫ মিনিট থেকে বাড়িয়ে ২০ মিনিট করা হয়েছে। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, শ্রবণ প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই তারা শ্রুতি লেখককে সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। ঢাকা বোর্ডের আওতাধীন ঢাকা বধির স্কুলে ৪৬ জন শ্রবণ প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থী রয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবারও সম্পূর্ণ নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া ২১টি বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হবে। ২০১০ সালে ২টি বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়েছিল। গত বছর ১০টি বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা হয়। এবার এসএসসিতে বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি ১ম ও ২য় পত্র এবং গণিত ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা হবে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি পরীক্ষা চলাকালে দেশের সব রাজনৈতিক দল কর্মসূচি দেয়ার ক্ষেত্রে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবেন বলে এমনটাই আশা করছি। এ বিষয়ে  তিনি বলেছেন, যারা পরীক্ষা দিচ্ছে তারা কোন দলের পরিচয়ে পরিচিত না। আমি আশা করব এ ব্যাপারে সবাই সহযোগিতা করবেন।
পরীক্ষা চলাকালে রাজনৈতিক কর্মসূচি না দেয়ার ক্ষেত্রে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির প্রতি কোন আহ্বান রাখবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি এখনও দলীয় ব্যক্তি হিসেবে নয়, শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে কথা বলছি। রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ যথেষ্ট দায়িত্বশীল বলে আমি মনে করি। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য তারা সহযোগিতা করবেন। তিনি বলেন, রাজনীতিবিদরা পরীক্ষার হলে যেতে পারবেন না। তবে প্রয়োজনে তাদের ডাকা হলে তারা পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে পারবেন। বিভিন্ন স্তরে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার দিন দিন কমছে বলেও দাবি করেন শিক্ষামন্ত্রী। শিক্ষার্থী ঝরে পড়া রোধ করতে বর্তমানে প্রাথমিকে ৭৮ লাখ শিক্ষার্থীকে এবং মাধ্যমিকের ৩৯ লাখ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি দেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে শিক্ষাসচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান ফাহিমা খাতুন উপস্থিত ছিলেন। ২০১২ সালের এসএসসি পরীক্ষার জন্য নিবন্ধিত ৪ লাখ ৪৫ হাজার ৭৯২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে না। ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষে এসব শিক্ষার্থীরা নবম শ্রেনীতে নিবন্ধিত হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে ধরে নেয়া হচ্ছে দরিদ্রতার কারণেই তারা হয়তো পরীক্ষা দিচ্ছে না।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট