Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

সাংবাদিকদের কারণে সম্প্রচার নীতিমালা তৈরিতে দেরি হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১ মে: তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, ‘‘ নীতিমালার প্রশ্নে সাংবাদিকদের মধ্যে দুইটি গ্রুপ দেখা যায়। কেউ বলে করা দরকার, আবার কেউ বলে দরকার নাই। এই জন্য সম্প্রচার নীতিমালা প্রণয়নের কাজ পিছিয়ে যাচ্ছে। কী নীতিমালা হলে ভলো হবে সে বিষয়ে কাজ শুরু হয়েছে। সবার সঙ্গে কথা বলে একটি গ্রহণযোগ্য সম্প্রচার নীতিমালা প্রণয় করা হবে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর সম্প্রচার নীতিমালা করার পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের নীতিমালা অনুসরণেই আমাদের নীতিমালা তৈরি করা হবে।’’

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ‘বাংলাদেশের গণমাধ্যম পরিস্থিতি ও সম্প্রচার নীতিমালা’ শীর্ষক বার্ষিক সেমিনার ও স্মরণিকা প্রকাশনা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি এই সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান সাগর। সেমিনারের মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এম এম শামীম রেজা।

সম্প্রচার নীতিমালা সর্ম্পকে তিনি বলেন, ‘‘সম্প্রচার নীতিমালা নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। সমালোচনা করলে কাজের গতি কমে যায়। তাই আলোচনার মাধ্যমে কাজ করলে ভালো হয়। আপনি যে তথ্য দিবেন সে তথ্য যেন দেশ ও জনগণের স্বার্থে কাজে লাগে। কমিউনিটি রেডিও ও টেলিভিশন চালু হওয়ায় অনেক সাংবাদিকদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।’’

তিনি বলেন, ‘‘বর্তমান সরকার গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। তাই গণমাধ্যম পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে। গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন এজেন্সি অবাধ স্বাধীনতা ভোগ করছে। বর্তমান সময়ে সংবাদপত্রের সংখ্যা বেড়েছে। সাংবাদিকরা বর্তমানে যে স্বাধীনতা ভোগ করছে তা অতীতের যেকোনো সরকারের চেয়ে বেশি। এই স্বাধীনতা কোনো কোনো উন্নত দেশের চেয়ে বেশি।’’

ঢাকা বিশ্ববিবিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিবিদ্যালয় সংবাদদাতাদের মন্ত্রী ওয়েজ বোর্ডের আওতায় আনার আশ্বাস দেন।

সাংবাদিক দম্পত্তি সাগর-রুনির হত্যাকাণ্ড সর্ম্পকে তিনি বলেন, ‘‘এই ঘটনায় আমরা দুঃখিত। এই ধরনের ঘটনা কারো কাছে কাম্য নয়। সরকারের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিয়ে সরকার সজাগ আছে।’’

তিনি বলেন, ‘‘সরকার জনগণের সার্বিক নিরাপত্তা দেবার জন্য কাজ করছে। সরকারের যে কোনো কাজ সর্বাত্মক গুরুত্ব দিয়ে করা হচ্ছে। তথ্যাধিকার আইন ২০০৯ বাস্তবায়নের জন্য বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য কাজ করছি। তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিত করার জন্য বেসরকারি টেলিভিশন, রেডিওসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের অনুমোদন দিচ্ছে সরকার। আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল সাংবাদিকদের সাহায্যর জন্য একটি ফান্ড গঠন করার ব্যবস্থা গ্রহণ হয়েছে।’’

সেমিনারের উদ্বোধন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

তিনি বলেন, ‘‘ বর্তমান শতাব্দী হচ্ছে ‘তথ্য সমাজের শতাব্দী’। বিশ্বের উন্নত দেশে সম্প্রচার নীতিমালা রয়েছে। আমাদের দেশে সম্প্রচার নীতিমলাকে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো সমৃদ্ধ করতে এই ধরনের সেমিনার বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।’’

বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা সম্প্রচার নীতিমালা সর্ম্পকে আলোচনা করেন এবং এর সঠিক বাস্তবায়নের জন্য কাজ করছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি হাসান নিটোলের সভাপতিত্বে সেমিনারের উপস্থিত ছিলেন নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন অ্যান্ড ফিল্ম স্টাডিস বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. এজে এম শফিউল আলম ভূইয়া, এনটিভির প্রধান বার্তা সম্পাদক খায়রুল আনোয়ার মুকুল, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান জুনায়েদ আহমদ হালিম, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমীন গাজী, বাংলাভিশনের নিউজ অ্যাডভাইজার  ড. আবদুল হাই সিদ্দিক।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট