Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

‘পিকেটার দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দিয়েছেন ডিসি স্যার’

তোহুর আহমদ: হরতালে পিকেটার দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ দিয়েছেন ডিসি স্যার। তেজগাঁও ডিভিশনের উপ-পুলিশ কমিশনার মৌখিকভাবে এ নির্দেশ দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন তেজগাঁও থানার এসআই নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস। অবশ্য তেজগাঁও ডিভিশনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার এ ধরনের নির্দেশ দেয়ার বিষয় অস্বীকার করেছেন।
গতকাল মহাখালীর একটি চেকপোস্টে অস্ত্র উঁচিয়ে ফায়ারিং পজিশন নিয়ে পুলিশকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়। পুলিশের এ বিস্ময়কর দায়িত্ব পালনের ভিডিওচিত্র ধারণ করে একটি বিশেষ গোয়েন্দা সংস্থা। মহাখালীর জাহাঙ্গীর গেটে দাঁড়িয়ে ঘণ্টাব্যাপী এ দৃশ্য ধারণ করতে দেখা যায় সাদা পোশাকধারী কয়েকজন গোয়েন্দা সদস্যকে। গতকাল দুপুরে মহাখালী ক্যাপ্টেনস ওয়ার্ল্ডের উল্টো দিকে ফুট ওভারব্রিজের নিচে দায়িত্ব পালন করছিলেন ৫ জন পুলিশ। নেতৃত্বে ছিলেন তেজগাঁও থানার এসআই নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাস। ইউনিফর্মের নেমপ্লেটে লেখা নৃপেন। অন্য ৪ পুলিশ সদস্য কনস্টেবল আল আমিন, কনস্টেবল সহিদুল, কনস্টেবল রেজাউল ও কনস্টেবল নাজিম। একটি সাদা পিকআপ ভ্যান দাঁড়িয়েছিল চেকপোস্ট স্থলে। পিকআপটির নম্বর ঢাকা মেট্রো ঠ ১৩-০৬৩৮।
হরতালে ফাঁকা রাস্তায় যানবাহন চলছিল দ্রুতগতিতে। মহাখালী ফ্লাইওভারের পূর্ব দিক থেকে আসা প্রতিটি যানবাহনের দিকে অস্ত্র তাক করা হচ্ছিল। যানবাহনগুলো না থামলেই পিস্তল উঁচিয়ে ফাঁকা গুলি ছুড়ছিলেন এসআই নৃপেন। একজন কনস্টেবল শটগান উঁচিয়ে ফায়ারিং পজিশনে ছিলেন। অস্ত্র তাক করে প্রতিটি যানবাহনকে থামানো হচ্ছিল। যাত্রীদের টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে তল্লাশি করছিলেন পুলিশ সদস্যরা। সাধারণ চেকপোস্টে পুলিশের দায়িত্ব পালনের এমন নজিরবিহীন দৃশ্য দেখে পথচারীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। অনেকে গাড়ি থামানোর সঙ্গে সঙ্গে হাতজোড় করে মিনতি করেন। পিস্তল তাক করা দেখে কেউ কেউ হাত উঁচু করে দাঁড়ান।
গুলি করে দেবো: দায়িত্ব পালনরত এসআই নৃপেনকে কিছুটা অস্বাভাবিক মনে হয়। তিনি হেলমেট পরে প্রতিটি যানবাহনকে লক্ষ্য করে পিস্তল তাক করছিলেন। যাত্রীদের নামিয়ে মাথায় পিস্তল ধরে উচ্চৈঃস্বরে বলছিলেন, গুলি করে দেবো। এ সময় তিনি সাধারণ নাগরিকদের উদ্দেশে বলেন, শালার পাবলিক। গুলি খেলে ঠিক হয়। না হলে সব উল্টো। আজ মজা দেখাবো। দুপুর থেকে এ চেকপোস্টে পুলিশের এমন তাণ্ডব চলে। বিকাল ৪টার দিকে চ্যানেল আই ও একুশে টেলিভিশনের দু’টি গাড়িকে পিস্তল উঁচিয়ে থামান এসআই নৃপেন। গাড়ির ভেতর থেকে বলা হয়- গাড়িতে সাংবাদিক আছেন। হরতালের ডিউটিতে নিয়োজিত এ গাড়ি। এ কথা শুনে উত্তেজিত নৃপেন গাড়ি দু’টি ছেড়ে দিয়েই অশ্লীল গালাগালি শুরু করেন। এ সময় রাস্তার বিপরীত দিক থেকে কয়েকজন ফটোসাংবাদিক পুলিশের এই অস্বাভাবিক দায়িত্ব পালনের ছবি তোলেন। এতে আরও উত্তেজিত হন নৃপেন। বলেন, এটা কি আমার অবৈধ অস্ত্র? এটা বৈধ অস্ত্র। ছবি তুলে কোন লাভ হবে না। নৃপেন বলেন, সাহস থাকলে কাছে এসে ছবি তোল। দূর থেকে ছবি তুলছিস কেন? তিনি বলেন, শালার পুলিশের চাকরি। এত জবাবদিহি। আজ সুযোগ পাইছি। এভাবে দায়িত্ব পালনের কারণ জানতে চাইলে মানবজমিনকে নৃপেন বলেন, এখানে সকাল থেকেই একের পর এক ককটেল ফাটছে। কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করা হয়েছে। তাই এখানে পিকেটার দেখামাত্র আমাদের গুলির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কে নির্দেশ দিয়েছে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ডিসি স্যারের নির্দেশ। প্রচণ্ড গরমে হেলমেট মাথায় এসআই নৃপেন দর দর করে ঘামছিলেন। আর উত্তেজিত হয়ে এদিক-ওদিক ছুটোছুটি করছিলেন। এখন পর্যন্ত কত রাউন্ড গুলি করেছেন জানতে চাইলে নৃপেন বলেন, তা বলবো না। আমাদের অনেক রকম ব্যবস্থা নিতে হয়। ঘটনাস্থলে আরও দু’জন ফটোসাংবাদিক চলে এলে পিস্তলটি কোমরে গুঁজে রাখেন তিনি। পিকেটার দেখামাত্র গুলির নির্দেশ সম্পর্কে জানতে তেজগাঁও জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার ইমাম হোসেনের অফিসে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। অফিসের টেলিফোন অপারেটর ইব্রাহিম বলেন, স্যার হরতালের ডিউটিতে বেরিয়ে গেছেন। কখন আসবেন, বলতে পারবো না। আপনি মোবাইলে ফোন করেন। মোবাইলে ফোন করলে উপ-পুলিশ কমিশনার ফোন রিসিভ করেননি। একাধিকবার এসএমএস পাঠিয়ে বক্তব্য চাওয়া হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। অবশ্য তেজগাঁও জোনে সদ্য পদোন্নতি পেয়ে যোগদান করা অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকারকে পিকেটারকে দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশের বিষয়টি জানালে তিনি আশ্চর্য হন। তিনি বলেন, এ ধরনের নির্দেশ দেয়ার ক্ষমতা আমাদের আছে নাকি? ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আমাকে গুলির নির্দেশ দিয়েছেন, এসআই নৃপেনের এমন দাবির বিষয়ে অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বলেন, আমি এখনই বিষয়টি দেখছি। আমি তাকে এখনই ফোন করবো। এভাবে সে দায়িত্ব পালন করতে পারে না।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট


One Response to ‘পিকেটার দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দিয়েছেন ডিসি স্যার’

  1. Mohammad Mazbah Uddin

    April 30, 2012 at 2:21 pm

    Ek kothai gonda police……….