Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে দিল্লি এক রানে জয়ী

নয়া দিল্লি, ২৯ এপ্রিল: শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে মাত্র ১ রানে জয়ী হয়েছে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। জয়ের কাছাকাছি গিয়েও রাজস্থান রয়্যালসকে জয় এনে দিতে পারেননি ওপেনার আজিংকা রাহানে। তার ৬৩ বলে ৯ চার ও এক ছক্কার সাহায্যে হার না মানা ৮৪ রান বিফলে গেলো।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য রাজস্থানের দরকার হয় ১২ রানের। ক্রিজে ছিলেন দুই মারকুটে ব্যাটসম্যান আজিংকা রাহানে এবং ওয়াইজ শাহ। অপরদিকে দিল্লির পক্ষে বল হাতে ছিলেন উমেশ যাদব। শেষ পর্যন্ত উমেশ যাদবই জয়ী হন এ লড়াইয়ে।

শেষ ওভারের প্রথম বলে আজিংকা রাহানে এক রান নেন। দ্বিতীয় বলে ওয়াইজ শাহও এক রানের বেশি নিতে পারেননি। তৃতীয় বলে আজিংকা রাহানে ছক্কা হাঁকিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন। এর পরের বলে রাহানে নেন দুই রান।

শেষ বলে রাজস্থানের জয়ের জন্য প্রয়োজন পড়ে দুই রানের। কিন্তু উমেশ যাদবের করা শেষ বলটি ব্যাটে বলে সংযোগ ঘটাতে ব্যর্থ হন আজিংকা রাহানে। বল চলে যায় সরাসরি উইকেটরক্ষক নামান ওঝার হাতে। নামান ওঝা বল ধরে স্ট্যাম্প ভেঙে দিলে রান আউট হন ওয়াইজ শাহ। সেই সাথে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ১ রানে জিতে যায় দিল্লি ডেয়ারডেভিলস।

ম্যাচসেরার পুরস্কার পান দিল্লি ডেয়ারডেভিলস অধিনায়ক বীরেন্দর শেবাগ।

দিল্লির দেয়া ১৫৩ রানের মোটামুটি সহজ টার্গেট তাড়া করতে নেমে রাজস্থানের দুই ওপেনার অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড় এবং আজিংকা রাহানে ৯৯ রানের পার্টনারশীপ গড়ে দারুণ সূচনা এনে দেন। দ্রাবিড় ৪০ রান করে ইরফান পাঠানের বলে আগারকারের তালুবন্দী হলে প্রথম উইকেট হারায় রাজস্থান।

এরপর আজিংকা রাহানের সাথে জুটি বাধেন ব্র্যাড হজ। ৪২ রান করে এটি জুটি বিচ্ছিন্ন হন। ১৮ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফেরেন ব্র্যাড হজ। তখন খেলা বাকি এক ওভার। শেষ ওভারে রাজস্থানের প্রয়োজন ছিল ১২ রানের। কিন্তু ওই ওভারের নাটকীয়তায় নির্ধারিত ২০ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে ১৫১ রানের বেশি এগুতে না পারায় ১ রানের জয় পায় দিল্লি।

এ জয়ের ফলে ৯ খেলায় সাত জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে দিল্লি। অপরদিকে সমসংখ্যক খেলায় ৮ পয়েন্ট নিয়ে রাজস্থান রয়্যালসের অবস্থান পঞ্চম।

এর আগে নয়া দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে টসে জিতে শেবাগের দিল্লি ডেয়ারডেভিলস নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে করে ১৫২ রান। অধিনায়ক শেবাগের অর্ধশতক রানের কল্যাণে ওই স্কোর গড়ে দিল্লি। শেবাগ ৩৯ বলে আটটি চার ও দুটি ছক্কার সাহায্যে ৬৩ রান করে আউট হন। এ নিয়ে এবারের আইপিএলে টানা চতুর্থ অর্ধশতক হাঁকানোর কৃতিত্ব দেখালেন শেবাগ।

এছাড়া নাগর ২৭, রস টেইলরের ২৫ রান উল্লেখযোগ্য।

রাজস্থানের বোলারদের মধ্যে পংকজ সিং এবং অমিত সিং নেন দুটি করে উইকেট।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট