Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

রাজধানীতে ডায়রিয়ার প্রকোপ

ঢাকা, ২৪ এপ্রিল: সোমবার রাত তিনটার সময়ও মহাখালির কলেরা হাসপাতাল বা আইসিডিডিআরবিতেও রোগী আসার কমতি নেই। কয়েক মিনিট পর পর ট্যাক্সি, সিএনজি অটোরিক্সা ও রিকসা যোগে রোগী আসছে।

হাসপাতালটির মূল গেট পার হলেই জরুরি বিভাগের সামনে সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রাখা হয়েছে আটটি ট্রলি ও হুইল চেয়ার। রোগী আসা মাত্রই ট্রলিতে করে ভেতরে নিয়ে যাচ্ছেন কর্মচারীরা, সাথে সাথে সব রোগীকে ডায়াসল স্যালাইন দেয়া হচ্ছে। রাতভর রোগী, রোগীর আত্মীয় স্বজন, ডাক্তার, নার্সদের ছোটাছুটিতে ব্যস্ত থাকে আন্তর্জাতিক মানের এই স্বাস্থসেবা প্রতিষ্ঠানটি।

মহাখালীতে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রে (আইসিডিডিআরবি) বিনামূল্যে ডায়রিয়ার চিকিৎসা ও ওষুধ দিয়ে থাকে।এখানকার পরিবেশ সরকারি হাসপাতালগুলোর তুলনায় অনেক ভালো বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও রোগীরা দাবি করেছেন।

রাজধানীতে গরমের কারণে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। প্রচণ্ড গরমে বিশেষ করে শিশুরাই বেশি আক্রান্ত হয়। অধিকাংশ শিশুকে ২৪ ঘণ্টা হাসপাতালে রেখে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে। যেসব আক্রান্ত শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক তাদের হাসপাতালে চার থেকে সাতদিন ভর্তি রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

খিলক্ষেতের শামসুল ইসলাম মঙ্গলবার ভোরে এসেছেন তার দুই বছরের ছেলে রাকিবকে নিয়ে। তিনি জানান, গত দুইদিন ধরে তার ছেলে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত। প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে ওষুধ খাইয়েছেন। কিন্তু সুস্থ না হওয়ায় আইসিডিডিআরবিতে নিয়ে এসেছেন।

আইসিডিডিআরবি’র ডিউটি ডাক্তার আরিফুল ইসলাম জানান, গরমের কারণে শিশু, বৃদ্ধ এমনকি যে কোনো সুস্থ মানুষ অসুস্থ হচ্ছে। উচ্চ তাপমাত্রা এবং জীবাণুযুক্ত পানি পান করায় এমনটি হচ্ছে। শিশুদের বাসি ও ভাজা জাতীয় খাবার না খাওয়ানো, বদ্ধঘরে না রাখা এবং ফোটানো পানি খাওয়ানোর পরামর্শ  দিয়ে থাকি। ভ্যাপসা গরম থেকে রক্ষা পেতে যথাসম্ভব ঠাণ্ডা স্থানে রাখতে হবে।

তিনি জানান, মৌসুমের আগেই ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব বেড়েছে রাজধানীতে। কলেরা হাসপাতাএল বাড়ানো হয়েছে চুক্তিভিত্তিক চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবীর সংখ্যা।

সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘‘সামনে তাপমাত্রা আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। উচ্চ তাপমাত্রা, জীবাণুযুক্ত পানি ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবারের সঙ্গে ডায়রিয়ার বেশ সম্পর্ক রয়েছে। উচ্চ তাপমাত্রায় ডায়রিয়ার জীবাণু যেন জীবন খুঁজে পায়। এ পরিবেশে ডায়রিয়ার জীবাণুর দ্রুত বিস্তার ঘটে। আর দূষিত পানি ও বাসি খাবার খেলে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হবেই। তাই পরিষ্কার পানি ও পানি ও আঁশজাতীয় খাবার খেতে হবে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট