Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন লুনা

 স্বামীর সন্ধান করতে করতে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ‘নিখোঁজ’ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা। শনিবার রাতে গাজীপুরের পূবাইলে র‌্যাব-পুলিশের ‘উদ্ধার নাটক’-এর পর গতকাল ক্লান্ত অবসন্ন লুনা কথা বলেননি গণমাধ্যমের সঙ্গে। তার পরিবারের পক্ষ থেকে গতকাল জানানো হয় শনিবারের রাতের পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার রক্তচাপ বেড়ে গেছে। ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন স্থান থেকে ক্ষণে ক্ষণে খবর এলেও এ পর্যন্ত তার সন্ধান না পাওয়ায় এখন এরকম কোন সংবাদ বা আলোচনা শুনলেই লুনার প্রেসার বেড়ে যাচ্ছে। এ কারণে তিনি গতকাল সংবাদমাধ্যমের কারও সঙ্গে কথা বলেননি বলে জানিয়েছেন তার ছোট বোন দিনা। দুপুরে ইলিয়াস আলীর বনানীর বাসা সিলেট হাউজের পাঁচ তলার ফ্ল্যাটে গেলে দিনা জানান, আপা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। কথা বলতে পারবেন না। তিনি বলেন, পত্রিকায় অনেক আজগুবি খবর ছাপা হচ্ছে। র‌্যাব ও পুলিশ বলছে, আপাকে নিয়ে নাকি তারা গাজীপুরে অভিযান চালিয়েছে। আসলে আপা তাদের সঙ্গে যাননি। তিনি বলেন, এগুলো এমনিতেই প্রচার করা হচ্ছে। এ সময় তিনি ইলিয়াস আলীর আট বছরের মেয়ে সাইয়ারা নাওয়ালকে দেখিয়ে বলেন, পত্রিকায় লিখেছে ওকে নিয়ে নাকি আপা পূবাইলে গিয়েছিলেন। ওকেই জিজ্ঞেস করেন গিয়েছিল কিনা।
এদিকে গতকাল দিনভর সংবাদকর্মীরা ইলিয়াস আলীর বাসার সামনে অবস্থান করেন। তারা চেষ্টা করেও তাহসিনা রুশদীর লুনা’র কোন বক্তব্য নিতে পারেননি। ওই বাসার ভেতরেও কেউ যেতে পারেননি। বিকাল ৩টায় ইলিয়াস আলীর ঘনিষ্ঠজন ও বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম হিলালী অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের জানান, উনি (তাহসিনা রুশদীর লুনা) অসুস্থ, ক্লান্ত। কথা বলার মতো অবস্থা তার নেই। এজন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, সুস্থ হলে তিনি আপনাদের সঙ্গে কথা বলবেন।  এ সময় ইলিয়াস আলীর বড় ছেলে আবরার ইলিয়াস অর্ণব জানান, আম্মু খুবই অসুস্থ। তার মন খারাপ। তিনি আমার সঙ্গেই কথা বলছেন না। আমাদের মানসিক অবস্থা ভাল না। অর্ণব বলেন, র‌্যাব ও পুলিশের লোকজন বাসায় আসছেন। তবে তাদের কাজে আমরা আশার কিছু দেখছি না।
দুপুরে ইলিয়াস আলীর বাসায় যান বিএনপি নেতা ব্রিগেডিয়ার আ স ম হান্নান শাহ ও সেলিমা রহমানসহ কয়েকজন নেতাকর্মী। যাওয়ার সময় হান্নান শাহ বলেন, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতা ইলিয়াস আলীকে সরকারের পক্ষ থেকে তুলে নেয়া হয়েছে। অবিলম্বে তাকে জীবিত অবস্থায় ফিরিয়ে দিতে হবে। তিনি বলেন, তার নিখোঁজের ঘটনায় বিএনপি’র ডাকা হরতালের বিষয় স্ত্রী লুনাকে অবহিত করতে তারা ওই বাসায় যান। বেলা দেড়টার পর র‌্যাব ১-এর উপ-পরিচালক মেজর মোস্তাক একটি ডায়েরি হাতে ইলিয়াস আলীর বাসায় যান। তিনি সেখানে প্রায় আধাঘণ্টার মতো অবস্থান করে চলে যান। চলে যাওয়ার সময় উপস্থিত সাংবাদিকরা তার কাছে প্রশ্ন করলে তিনি বিস্তারিত কিছু না বলে জানান, ইলিয়াস আলীকে উদ্ধারে তাদের তৎপরতার বিষয় জানাতে এসেছিলেন তিনি। এ বিষয়ে কথা বলেছেন। এর কিছুক্ষণ পর ইলিয়াস আলীর বাসা থেকে বের হয়ে বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম হিলালী জানান, র‌্যাব কর্মকর্তা আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। উনি (লুনা) অসুস্থ থাকায় তার সঙ্গে কথা বলতে পারেননি। র‌্যাব কর্মকর্তা ভেতরে থাকার সময়ই বনানীর ওসি মামুন অর রশিদ কয়েকজন পুলিশ সদস্য নিয়ে একটি পিকআপে সেখানে যান। তিনি বাড়ির নিচতলায় প্রবেশ করলেও ইলিয়াস আলীর স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেননি। যাওয়ার সময় ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, তদন্তের অগ্রগতির বিষয়ে প্রথম রিপোর্ট শনিবার আদালতে দাখিল করা হয়েছে। সোমবার আবার অগ্রগতির প্রতিবেদন দেয়া হবে। তিনি জানান, শনিবার আমরা উদ্ধারে অভিযান চালিয়েছি, আরও অভিযান চালানো হবে।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট