Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

চট্টগ্রামে র‌্যাবের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা অভিযুক্ত

ঢাকা, ২১ এপ্রিল: চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানার লাভ লেইনের আবেদীন কলোনির ১৬ নং বাড়িতে শুক্রবারের ঘটনায় ছাত্রলীগের সমাজসেবা বিষয়ক উপ সম্পাদক ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী রিণ্টুর নামে থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে। চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বিষয়টির সততা নিশ্চিত করেছেন।

আবেদীন কলোনির বিরোধপূর্ণ বাড়িটি নিয়ে দীর্ঘদিন বাড়ির বর্তমান মালিক ইঞ্জিনিয়ার সালেহ আহমদের সঙ্গে রাউজান উপজেলার ডাবুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমানের বিরোধ চলছিল। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী রিণ্টু আব্দুর রহমানের পুত্র।

সালেহ আহমদ এর ছেলে সাইফুল ইসলাম বার্তা২৪ ডটনেটকে বলেন, ‘‘ইয়াবা নিয়ে ফাঁসাতে এসে র‌্যাবের সোর্স এবাদুর রহমান যখন নিজেই র‌্যাবের হাতে ধরা পড়ে, তখন তাকে বাঁচাতে এসেছিলেন ফরহাদুল ইসলাম রিণ্টু। এসময় রিণ্টুর সঙ্গে অপরিচিত আরো ১০-১২ জন যুবক ছিল।’’

সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, ‘‘তাদের বাড়ি দখল করার জন্য আব্দুর রহমান এবং তার পুত্ররা অনেক আগে থেকেই চেষ্টা করে আসছিল। আইনি লড়াইয়ে না পেরে শেষে তাদের বাড়িতে ঝামেলা বাঁধিয়ে দখল করতে চেয়েছিল।’’

তিনি বলেন, ‘‘বাড়ি দখল করার পূর্ব প্রস্ত্ততি হিসেবে রিণ্টুদের বাড়িতে প্রায় ৫০ জন লোক হাজির ছিল।’’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোতোয়ালী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বার্তা২৪ ডটনেটকে ছাত্রলীগ নেতার নামে মামলা প্রসঙ্গে বলেন, ‘ছাত্রলীগ নেতা ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী রিণ্টু এবং তার বাবা আব্দুর রহমানের নামে থানায় এজাহার করা হয়েছে।’’

তবে এ বিষয়টি জানেন না ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ। তিনি বার্তা২৪ বলেন, ‘‘ঘটনাটি আমার জানা নেই।’’

উল্লেখ্য, বিরোধপূর্ণ বাড়ি দখলের কৌশল হিসেবে নিষিদ্ধ মাদক ইয়াবাসহ গৃহকর্তাকে ধরিয়ে দিতে গিয়ে শুক্রবার আটক হন র‌্যাবের সোর্স এবাদুর রহমান। আটক এবাদুর সেসময় গণমাধ্যমকে জানান, র‌্যাবের অপর এক সোর্স আইয়ুবের সঙ্গে দশ হাজার টাকার চুক্তিতে সে একটি পোটলায় করে ২০০ পিস ইয়াবা নিয়ে ওই ঘরে ঢুকেছিল।

পরবর্তীতে র‌্যাব-৭ এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর জিয়াউল আহসান সরোয়ার গণমাধ্যমে মন্তব্য করেন, ভুল তথ্য দিয়ে র‌্যাবকে অভিযানে নিয়ে যাওয়ার দায়ে র‌্যাব সদস্যরাই এবাদুরকে পুলিশে তুলে দিয়েছে।

বাদী সাইফুল ইসলাম জানান, শনিবার কোতোয়ালী থানায় দায়ের করা মামলাটির নম্বর ৩৫। মামলায় আব্দুর রহমান, ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী রিণ্টুসহ কয়েকজনের নামে অভিযোগ করা হয়েছে।

তবে বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছে ফরহাদুল ইসলাম রিণ্টু। তিনি বা২৪ বলেছেন,‘‘ঘটনার সময় তিনি ওই বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন না। বিষয়টি শোনার প্রায় দুই ঘণ্টা পর তিনি ঘটনাস্থলে যান।’’

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট