Widgetized Section

Go to Admin » Appearance » Widgets » and move Gabfire Widget: Social into that MastheadOverlay zone

ইলিয়াস আলী গুম হলে সরকারও গুম হয়ে যাবে: মির্জা আব্বাস

ঢাকা, ২০ এপ্রিল: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাস বলেছেন, “সরকার ইলিয়াস আলীকে যদি সত্যিই গুম করে থাকে তবে সরকারও গুম হয়ে যাবে। আন্দোলনের মাধ্যমে এ সরকারকে নিখোঁজ করা হবে। সরকার গুম, অপহরণের রাজনীতি বন্ধ না করলে গুমের ফাঁদে পড়বে এ সরকার।”

 

ইলিয়াস আলীর নিখোঁজ হওয়ার প্রতিবাদে শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরামের মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

মির্জা আব্বাস বলেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ ঘটনার বিব্রত হলেও প্রধানমন্ত্রী মোটেও বিব্রত নন। গত দু’দিনে প্রধানমন্ত্রী যেভাবে বক্তব্য দিচ্ছেন তাতে মনে হয় এ ঘটনায় সরকার মোটেও চিন্তিত নয়।”

 

বৃহস্পতিবারের প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যে কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, “আন্দোলনের ইস্যু করার জন্য ইলিয়াস আলীকে নিখোঁজ করা প্রয়োজন নেই। আপনাদের প্রত্যেকটি কাজের মধ্যে আমাদের আন্দোলনের ইস্যু আছে।”

 

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে সাধারণ মানুষ হতাশ হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ে থেকে এমন কোনো বক্তব্য দেয়া উচিত নয় যাতে কোনো ঘটনার প্রভাবিত হতে পারে।”

 

বিএনপি নেত্রী ইলিয়াস আলীকে নিখোঁজ করে রেখেছে এমন বক্তব্য এ তদন্তকে প্রবাহিত করবে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

 

তিনি বলেন, “স্বজন-হারানোর বেদনা শেখ হাসিনা বুঝেন বলে দাবি করলেও তিনি এখন প্রতিনিয়ত মানুষ গুম করার ইন্ধন দিচ্ছেন।”

 

বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, “যে দেশের মানুষ তার বাড়ি থেকে বের হয়ে আবার বাড়ি যেতে পারবে কী-না সে নিশ্চিয়তা পাচ্ছে না সে দেশে আইনের শাসন বলতে কিছু নেই। সরকার যখন জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে তখন আর সরকারের ক্ষমতা থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে।”

 

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, “আওয়ামী লীগ ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার জন্য গুম, অপহরণের রাজনীতি শুরু করেছে।”

 

শেখ হাসিনার উদ্দেশ্য তিনি বলেন, “৭২ থেকে ৭৫ গুমের রাজনীতি করে আপনার পিতা বাঁচতে পারেনি, এবার আপনিও পারবেন না।”

 

বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরামের নির্বাহী কমিটির সদস্য প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরামের মহাসচিব ডা. এ জেডএম জাহিদ।

Share this:
Share this page via Facebook Share this page via Twitter

LIKE US on FACEBOOK নিউজ সোর্স b24/মজ / ডেস্ট